আধুনিক

মুছে যাওয়া দিনগুলি আমায় যে পিছু ডাকে

মুছে যাওয়া দিনগুলি আমায় যে পিছু ডাকে,
সৃতি যেন আমার হৃদয়ে,
বেধনার রঙে রঙে ছবি আঁকে।
মুছে যাওয়া দিনগুলি আমায় যে পিছু ডাকে,
সৃতি যেন আমার হৃদয়ে রঙে রঙে ছবি আঁকে।

মনে পড়ে যায়, মনে পড়ে যায়,
মনে যায় সেই প্রথম দেখার ও সৃতি,
মনে আয় সেই হৃদ্যয় দেওয়ার প্রিতি।
দুজনার দুটি পথ মিসে গেলো এক হয়ে,
নতুন পথের ও বাকে।

মুছে যাওয়া দিনগুলি আমায় যে পিছু ডাকে,
সৃতি যেন আমার হৃদয়ে,
বেধনার রঙে রঙে ছবি আঁকে।

সে এক নতুন দেশে,
দিন গুলি ছিল যে মুখর কতো রঙে।
সেই সুর কাঁদে আজ ই আমার প্রানে,
ভেঙ্গে গেছে হায়, ভেঙ্গে গেছে হায়।

ভেঙ্গে আজ সেই মধুর ও মিলন মেলা।
ভেঙ্গে গেছে আজ সেই হাঁসি আর রঙের ও খেলা।
কোথায় কখন কবে কোন তারা ঝরে গেলো,
আকাশ কি মনে রাখে।

মুছে যাওয়া দিনগুলি আমায় যে পিছু ডাকে,
সৃতি যেন আমার হৃদয়ে,
বেধনার রঙে রঙে ছবি আঁকে।

মুছে যাওয়া দিনগুলি আমায় যে পিছু ডাকে,
সৃতি যেন আমার হৃদয়ে,
বেধনার রঙে রঙে ছবি আঁকে।

আধুনিক

খুব জানতে ইচ্ছে করে

খুব জানতে ইচ্ছে করে,
খুব জানতে ইচ্ছে করে,
তুমি কি সেই আগের মতো আছো,
তুমি কি সেই আগের মতো আছো,
নাকি অনেক খানি বদলে গেছো।
জানতে ইচ্ছে করে,খুব জানতে ইচ্ছে করে।

এখন ও কি প্রথম সকাল হলে,
স্নানটি সেরে পুজার ফুল তুলে,
ব্যাকুল পিয়াসে আমারই কথা ভাবো,
বসে ঠাকুর ঘরে। জানতে ইচ্ছে করে,
খুব জানতে ইচ্ছে করে।

এখন ও কি সন্ধ্যা বেলা,
আমার বাড়ি ফেরার সময় পেরিয়ে গেলে,
অনেক অভিমানে চোখ দুটো কি জলে ভরে।
জানতে ইচ্ছে করে,খুব জানতে ইচ্ছে করে।

এখন ও রাত নিঝুম হলে,
সরত কাহিনী পাশে খোলা পড়ে থাকে,
ব্যাকুল পিয়াসে, আমারই পিয়াসে,
অন্তর কেঁদে মোরে, জানতে ইচ্ছে করে।
খুব যানতে ইচ্ছে করে।

তুমি কি সেই আগের মতো আছো,
তুমি কি সেই আগের মতো আছো,
নাকি অনেক খানি বদলে গেছো।
জানতে ইচ্ছে করে,খুব জানতে ইচ্ছে করে।

আধুনিক

বড় সাধ যাগে একবার তোমায় দেখি

বড় সাধ যাগে একবার তোমায় দেখি,
কতকাল দেখিনি তোমায়–
একবার তোমায় দেখি।
বড় সাধ যাগে একবার তোমায় দেখি,

সৃতির জানালা খুলে চেয়ে থাকি,
সৃতির জানালা খুলে চেয়ে থাকি,
চোখ তুলে যতটুকু আলো আসে,
সে আলোয় মন ভরে যায়,

কতকাল দেখিনি তোমায়–
একবার তোমায় দেখি।
বড় সাধ যাগে একবার তোমায় দেখি,
কতকাল দেখিনি তোমায়–

আমার এ অন্ধকারে কতো রাত কেটে গেল,
আমি আধারেই রয়ে গেলাম,
আমার এ অন্ধকারে কতো রাত কেটে গেল,
আমি আধারেই রয়ে গেলাম,

তবু ভরের স্বপ্ন থেকে সেই ছবি,
ভরের স্বপ্ন থেকে সেই ছবি।
যাই একে রঙে রঙে সুরে সুরে,
ওরা যদি গান হয়ে যায়,

কতকাল দেখিনি তোমায়–
একবার তোমায় দেখি।
বড় সাধ যাগে একবার তোমায় দেখি,
কতকাল দেখিনি তোমায়–

আধুনিক

এই মন জোছনায় অঙ্গ ভিজিয়ে—

এই মন জোছনায় অঙ্গ ভিজিয়ে এসো না গল্প করি,
এই মন জোছনায় অঙ্গ ভিজিয়ে এসো না গল্প করি,
দেখো ঐ ঝিলি মিলি চাঁদ সারারাত আকাশে ছলমাজুরি।

জাপরানী ঐ আলতা ঠোটে,মিষ্টি হাঁসির গোলাপ ফোটে,
মনে হয় বাতাসের ঐ দিল্রুবাতে সুর মিলিয়ে আলাপ করি।
দেখো ঐ ঝিলি মিলি চাঁদ সারারাত আকাশে ছলমাজুরি।
এই মন জোছনায় অঙ্গ ভিজিয়ে এসো না গল্প করি।

এই রূপসী রাত আর ঐ রূপালী চাঁদ,বলে জেগে থাকো,
এ লগন ও আর কখন ও ফিরে পাবে নাতো।

মকমলের ঐ সুচনিকাশে,বসলে না হয় একটু পাশে,
মনে হয় মহুয়ার এই আতর মেখে তোমার কলে ঘুমিয়ে পড়ি।
দেখো ঐ ঝিলি মিলি চাঁদ সারারাত আকাশে ছলমাজুরি।
এই মন জোছনায় অঙ্গ ভিজিয়ে এসো না গল্প করি,
ও এসো না গল্প করি, ও এসো না গল্প করি—–

আধুনিক

যখন থামবে কোলাহল—-

যখইন থামবে কোলাহল,ঘুমে নিঝুম চারিদিক,
আকাশের উজ্জল তারা টা,মিট মিট করে শুধু জ্বলছে,
বুজে নিও তোমাকে আমি ডাকছি,তোমাকেই কাছে ডাকছি।
ঘুমিয়ে পোড়না বন্দু আমার যেগে থেকো সেই রাতে।
যখন থামবে কোলাহল ঘুমে নিঝুম চারিদিক।

যখন ফুলের গন্ধ এসে আবেশ ছড়াবে মনে,
বুজে নিও আমি আসছি সংগোপনে।
যখন ফুলের গন্ধ এসে, আবেশ ছড়াবে মনে,
বুজে নিও আমি, আসছি সংগোপনে।

কোকিলের ডাক যদি শোনো,
আমি আর দূরে নেই যেনো,
একটু পরে দেখা হবে দুজনাতে।
যখন থামবে কোলাহল ঘুমে নিঝুম চারিদিক।

যখন দক্ষিন বাতাস গাঁয় পরশ ভুলাবে এসে,
যেনো এসে গেছি আমি অবশেষে।
যখন দক্ষিন বাতাস গাঁয় পরশ ভুলাবে এসে,
যেনো এসে গেছি আমি অবশেষে।
বাসনার সেই নদী তীরে চিনে নিও প্রিয় সাথীরে,
স্বপ্ন ভেবে কেঁদো নাকো বেধনাতে।

যখইন থামবে কোলাহল,ঘুমে নিঝুম চারিদিক,
আকাশের উজ্জল তারা টা,মিট মিট করে শুধু জ্বলছে,
বুজে নিও তোমাকে আমি ডাকছি,তোমাকেই কাছে ডাকছি।
ঘুমিয়ে পোড়না বন্দু আমার যেগে থেকো সেই রাতে।
যখন থামবে কোলাহল ঘুমে নিঝুম চারিদিক।

আধুনিক

তোমার চোখেতে ধরা পড়ে গেছে রাত।

তোমার চোখেতে ধরা পড়ে গেছে রাত,
আধারে হারিয়ে যাওয়া পরদেশী রাত।
তোমার চোখেতে ধরা পড়ে গেছে রাত।

সাঝের প্রদীপ নিয়ে আসা এই রাত,
চোখের পলোকে যেগে থাকে এই রাত (২)
তোমার চোখেতে ধরা পড়ে গেছে রাত–ঐ

স্বপ্নের ও জাল দিয়ে জড়ানো এ রাত (২)
দরদীর মন ভেঙ্গে দিলো এই রাত (২)
তোমার চোখেতে ধরা পড়ে গেছে রাত–ঐ

খুসির ঝর্না হয়ে ঝরে এই রাত,
চেখের জলেতে কেন ভেসে যায় রাত (২)
তোমার চোখেতে ধরা পড়ে গেছে রাত (২)

আধুনিক

যদি তোমায় আমি চাঁদ বলি।

যদি তোমায় আমি চাঁদ বলি,ভুল হবে আমার,
তুমি চাঁদের চেয়ে ও সুন্দর।
যদি তোমায় আমি ফুল বলি,ভুল হবে আমার,
তুমি ফুলের চেয়ে ও সুন্দর।

তুমি আমার মনের মানুশ,তুমি আমার প্রাণ।
তুমি আমার সুর কথা,তুমি আমার গান।(২)
তুমি আমার জীবন তরী, তুমি আমার ছন্দ,
তুমি চাঁদের চেয়ে ও সুন্দর।
যদি তোমায় আমি চাঁদ বলি—ঐ

তুমি আমার আশার আল,তুমি আমার মন,
তুমি আমার ভালবাসা,তুমি আপন জন (২)
তুমি আমার শুখ দুঃখ, তুমি ভালো মন্দ।
তুমি চাঁদের চেয়ে ও সুন্দর।

যদি তোমায় আমি ফুল বলি ভুল হবে আমার,
তুমি ফুলের চেয়ে ও সুন্দর।।

আধুনিক

আমি যদি দক্ষিণের জানালা।

আমি যদি দক্ষিণের জানালা,
তুমি হবে দখিণা মলয় বাতাস।
আমি যদি দক্ষিণের জানালা।

আমি যদি দীঘি ভরা পদ্মের ও বোন,
তুমি হইও ঝল মোলে সূর্য কিরণ (২)
সোনা আলো দিও ডেলে,
নেবো যে পাপড়ি মেলে।
সুখী হবে দেখে তুমি আমারই প্রকাশ।
আমি যদি দক্ষিণের জানালা—ঐ

আমি যেন পৌষের রাতের শিশির,
তুমি যেন প্রান্তর মিলন ও থিথি (২)
আমি যদি কুলু কুলু নদী কলতান,
উজান এ সাগর ধারা তুমি গতিমান।
দুই কূল ভরে দিও উচ্ছলা করে নিও,
হবো আমি শুখ ও পিয়া সেই মধু মাস।

আমি দক্ষিণের জানালা,
তুমি হবে দখিণা মলয় বাতাস।
আমি যদি দক্ষিণের জানালা।।

আধুনিক

বাজে স্বভাব

কথা হবে দেখা হবে প্রেমে প্রেমে মেলা হবে
কাছে আসা আসি আর হবেনা,,,
চোঁখে চোঁখে কথা হবে ঠোটে ঠোটে নাড়া দেবে
ভালো বাসা বাসি আর হবেনা,,,,

শত রাত জাগা হবে থালে ভাত জমা রবে
খাওয়া দাওয়া কিছু মজা হবে না,,,
হুট করে ফিরে এসে লুট করে নিয়ে যাবে
এই মোন ভেঙ্গে যাবে জানো না,,,

আমার এই বাজে স্বভাব কোনদিন যাবে না,,,,
আমার এই বাজে স্বভাব কোনদিন যাবে না,,,,

ভুলভাল ভালোবাসি কান্নায় কাছে আসি
ঘৃনা হয়ে চলে যাই থাকিনা,,,
কথা বলি একা একা সেধে এসে খেয়ে ছেকা
কেনো গাল দাও আবার বুঝিনা,,,,

খুব কালো কোন কোনে গান শোনাবো গোপনে
দেখো যেনো আর কেও শোনেনা,,,,
গান গেয়ে চলে যাবো বদনাম হয়ে যাবো
সুনাম তোমার হবে হোকনা,,,,

আমার এই বাজে স্বভাব কোনদিন যাবে না,,,,
আমার এই বাজে স্বভাব কোনদিন যাবে না,,,,

যদি তুমি ভালোবাসো ভালো করে ভেবে এসো
খেলে ধরা কোনো খানে রবে না,,,,
আমি ছুয়ে দিলে পরে অকালেই যাবে ঝরে
গলে যাবে যে বরফ গলে না,,,,,

আমি গলা বেঁচে খাবো কানের আসে পাশে রব
ঠোটে ঠোট রেখে কথা হবে না,,,
কারো একদিন হবো কারো একরাত হবো
এর বেশি কারো রুচি হবে না,,,,

আমার এই বাজে স্বভাব কোনদিন যাবে না,,,,
আমার এই বাজে স্বভাব কোনদিন যাবে না,,,,

কথা হবে দেখা হবে প্রেমে প্রেমে মেলা হবে
কাছে আসা আসি আর হবেনা,,,
চোঁখে চোঁখে কথা হবে ঠোটে ঠোটে নাড়া দেবে
ভালো বাসা বাসি আর হবেনা,,,,

শত রাত জাগা হবে থালে ভাত জমা রবে
খাওয়া দাওয়া কিছু মজা হবে না,,,
হুট করে ফিরে এসে লুট করে নিয়ে যাবে
এই মোন ভেঙ্গে যাবে জানো না,,,

আমার এই বাজে স্বভাব কোনদিন যাবে না,,,,
আমার এই বাজে স্বভাব কোনদিন যাবে না,,,,

আধুনিক

আমি খাজনা দেবো নাহ

আমি খাজনা দেবো নাহ নাহ
তুমি বাজনা বাজাও
দেখি কতো পারো

বুকের খাঁজে মনের ভাজে
সৈন্য পাঠাও আরো
আমার রাজ্যে আমি রাজা
আমি সর্বময়
ভালোবাসার বুলেট বোমা
আমার জন্য নয়
আমার জন্য নয়

আমি খাজনা দেবো নাহ নাহ
তুমি বাজনা বাজাও
দেখি কতো পারো

ওগো ক্ষেপা ঢেউয়ের নাবিক
ওগো মেঘের আকাশচারী
সত্যি করে বলো দেখি
তোমার কথা না ট্যাঙ্ক লড়ি
কেমন তোমার যুদ্ধনীতি
কেমন বাজারদর
আমার ওপর চাপিয়ে দিলে ভালোবাসার কর।

আমি খাজনা দেবো নাহ নাহ
তুমি বাজনা বাজাও
দেখি কতো পারো।

ওগো কানা গলির পথিক
ওগো আলোর পাগল পারা
আমার আছে জোনাক পোকা
আর আলোর পাহারা
আমার আছে সুরের মন্ত্র বাঁশি দোতারা

স্বপ্ন বোঝাই যুদ্ধ জাহাজ
রেখেছি প্রস্তুত
প্রতিরোধের কামান
দাগবে আমার শান্তিদূত।

আমি খাজনা দেবো নাহ নাহ
তুমি বাজনা বাজাও
দেখি কতো পারো।

আধুনিক

বেহায়া মন-২

ও তুই, যতই জ্বালা….
যতই জ্বালা দিস রে কালা
যতই জ্বালা দিস রে কালা,
ততই বাড়ে প্রেমও স্বাদ
তোর লাইগা….. বেহায়া মনটা,
করে রে উৎপাত।
শোন বলি রে, প্রান-নাথ
তোর লাইগা… বেহায়া মনটা,
করে রে উৎপাত। আমার..
শোন বলি রে, প্রান-নাথ,
তোর লাইগা বেহায়া মনটা,
করে রে উৎপাত।
(বেহায়া মন আমার.., বেহায়া মন…)
ও তুই, যতই জ্বালা দিস রে কালা
ও তুই, যতই জ্বালা দিস রে কালা
ততই বড়ে প্রেমও স্বাদ
তোর লাইগা বেহায়া মনটা, করে রে উৎপাত।
আমি শোন বলি গো, প্রান-নাথ
তোর লাইগা বেহায়া মনটা, করে রে উৎপাত
ও তুই, যত ব্যাথা..
(বেহায়া মন আমার.., বেহায়া মন…)
দিয়েছিস নিঠুর…
ব্যাথার পরিবর্তে আমার লেগেছে মধুর রে বন্ধু, লেগেছে মধুর..
ও তুই, যত ব্যাথা..
দিয়েছিস নিঠুর
ব্যাথার পরিবর্তে সেথা, লেগেছে মধুর। রে আমার, লেগেছে মধুর।
যেমন, প্রভূর দ্বার ছাড়ে না কুকুর
প্রভূর দ্বার ছাড়ে না কুকুর, যতই করুক বেত্রাঘাত।
তোর লাইগা…
তোর লাইগা বেহায়া মনটা, করে রে উৎপাত।
শোন বলি রে, প্রান-নাথ
তোর লাইগা বে…
তোর লাইগা বেহায়া মনটা, করে রে উৎপাত।
ও তুই, যতই জ্বালা দিস রে কালা
ও তুই, যতই জ্বালা দিস রে কালা
ততই বড়ে প্রেমও স্বাদ
তোর লাইগা বেহায়া মনটা, করে রে উৎপাত।
আমি শোন বলি গো, প্রান-নাথ
তোর লাইগা বেহায়া মনটা, করে রে উৎপাত।
তোর লাইগা বেহায়া মনটা, করে রে উৎপাত।
বেহায়া মনটা লইয়া