আধুনিক

কিছু দুরে থাকা কিছু কাছে আসা

কিছু দুরে থাকা কিছু কাছে আসা
এ আসার যেন শেষ নেই
তুমি এলে কাছে সুর জাগে গানে
সুরের যে কিছু শেষ নেই।

এই রাত এত সুন্দর হল তুমি আসবে বলে
এই চাঁদ এত সপ্নীল হল ভালবাসবে বলে
দুজনের মধুস্বপ্নের মতো
মায়াময় কোন দেশ নেই।

এই মন এত চঞ্চল হল তুমি আসবে বলে
এই ক্ষন এত উজ্জ্বল হল তুমি হাসবে বলে
হাসির মায়ায় কে বলে এখন
ভালোলাগার সে আবেশ নেই।

আধুনিক

জ​ড়োয়ার ঝুমকো তে কি রূপ খোলে

জড়োয়ার ঝুমকো তে কি রুপ খোলে গো
রুপ খোলে কি কাঁকন চুঁড়ির কন্ঠ হারে।

বসন্তকে কোন জড়োয়ার কে সাজাবে
নদীরে গান কোন বাঁশিতে কে বাজাবে
চন্দ্রিমারে কে পড়াবে অলংকারে।

নিজের কাছে নিজেই তুমি প্রশ্ন করো
হ্রিদয় তোমার কোন কামনায় থরথর
আকুল তোমার তৃষ্ণা ডাকে কোন আমারে।।

আধুনিক

মুক্তি পাবে

এমনি কোন এক ভেজা
রাতের মাঝখানে
এই চূর্ণ দেহখানি মুক্তি পাবে,
তোমার খোঁজে বেরিয়ে পরা
আত্মার কাছ থেকে
এই ঝলসানো মনের কাছ থেকে।

বিভ্রান্তির স্তম্ভে দাড়িয়ে তোমায়
দেখেছি উচ্ছাসিত আসক্তিতে,
বিদ্বেষী কোন এক কন্টক শয্যায়
ডুবেছিলে পরিত্যাক্ত শ্বৈরাতন্ত্রে।

এমনি কোন এক ভেজা
রাতের মাঝখানে
এই চূর্ণ দেহখানি মুক্তি পাবে

মুক্তি পাবে
মুক্তি পাবে
মুক্তি পাবে
মুক্তি পাবে

আধুনিক

কতো শপ্ন দেখেছি,

কতো শপ্ন দেখেছি কতো ছবি একেছি,
কতো গান গেয়েছি আমি তোমায় নিয়ে।
সবই তোমায় নিয়ে, সব ই তোমায় নিয়ে ২

কতো শপ্ন দেখেছি কতো ছবি একেছি,
কতো গান গেয়েছি আমি তোমায় নিয়ে।
সব ই তোমায় নিয়ে, সব ই তোমায় নিয়ে ২

তুমি আমার জীবনে ফুটা ফুল,
ভালোবেসে করেছো আকুল।
তুমি আমার জীবনে ফুটা ফুল,
ভালোবেসে করেছো আকুল।

কতো পথ চলেছি, কতো শুখে ভেসেছি,
কতো তরী বেয়েছি আমি তোমায় নিয়ে।
সব ই তোমায় নিয়ে, সব ই তোমায় নিয়ে ৪

কতো শপ্ন দেখেছি কতো ছবি একেছি,
কতো গান গেয়েছি আমি তোমায় নিয়ে।

শুধু তোমার ঐ রিদয় ও ছায়ায়,
অনুরাগে ভাবে ভাসায়।
শুধু তোমার ঐ রিদয় ও ছায়ায়,
অনুরাগে ভাবে ভাসায়।

কতো কাছে এসেছি কতো চেয়ে থেকেছি,
কতো মগ্ন রয়েছি আমি তোমায় নিয়ে।
সব ই তোমায় নিয়ে, সব ই তোমায় নিয়ে ৪
কতো শপ্ন দেখেছি কতো ছবি একেছি,
কতো গান গেয়েছি আমি তোমায় নিয়ে।

তুমি আমার বুকের ঝর্না হয়ে,
সব ব্যাথা দিয়েছো ধুয়ে।
তুমি আমার বুকের ঝর্না হয়ে,
সব ব্যাথা দিয়েছো ধুয়ে।

কতো ভুল করেছি কতো দু:খ সয়েছি,
কতো মালা গেথেছি আমি তোমায় নিয়ে।
সব ই তোমায় নিয়ে, সব ই তোমায় নিয়ে ৪

কতো শপ্ন দেখেছি কতো ছবি একেছি,
কতো গান গেয়েছি আমি তোমায় নিয়ে।
সবই তোমায় নিয়ে, সব ই তোমায় নিয়ে ২

আধুনিক

Sajna || সাজন || Lyrics

সাজনা এই দু চোখে চেয়ে দেখ না
আমি লুকিয়ে রেখেছি যতন করে সেই তোমার দেয়া স্মৃতি আক্রে ধরে রেখে সারাক্ষণ তুমি কোথায় বল না
সাজনা এই দু চোখে চেয়ে দেখ না

আমারি মনেতে তোমারি ছায়া যে খেলা করে রাত্তি দুপুর
তোমারি ভাবনায় মিশে যে থাকে আমার সারা দুপুর
তবু কেন তোমায় পাশে পাই না
সাজনা এই দু চোখে চেয়ে দেখ না

স্বপ্নগুলো নিঝুম অরণ্য আর এ বিছিন্ন মন
তোমারি ভাবনায় আকাশ সম ব্যাথাগুলো করে বিচরন
তবু কেন আমায় তুমি বোঝনা
এ জীবন তুমি ছাড়া শূন্য হায়
সাজনা এই দু চোখে চেয়ে দেখ না

আধুনিক

Megher Niche|| মেঘের নিচে || Lyrics

মেঘের নিচে ঢেকে থাকা নীল আলোড়ন ,
অস্থির চিত্তে গেয়ে যাওয়া প্রকৃতির গান,
আঙ্গুল ছুঁয়ে যাওয়া বৃষ্টির জল
অনুভূতির ছোঁয়ায় পাওয়া অসীম স্বপ্নের দল

তুমি কি আর এসব ভাবনায় হারাও আনমনে
হারাও কি আর আগেরই মতো
চোখেরই নরম জলে

বালিশ চেপে বোবা কান্না কাঁদায় আমায় শুধু
একাকীত্বের বোবা বেদনা ভাবায় আমায় শুধু
স্মৃতিগুলো ঘিরে থাকে আমাকে
আর বৃষ্টি নামায়
মনের মাঝে না বলা কথা গুলো
আমায় ভাবায়

তুমি কি আর এসব ভাবনায় হারাও আনমনে
হারাও কি আর আগেরই মতো
চোখেরই নরম জলে

আধুনিক

ভালোবাসি তোমায়

হে প্রজাপতি সম নাম তোর—
কী টানা টানা চোখ
আর ভ্রুর মেলে ধরা,
ঐ গোলাপী ঠোঁটের
ও: কী পাগল করা নেশা লাগানো চুম্বন—
আজও আমায় মাতাচ্ছে।
হে তিতলী তুই আমার প্রিয়তমা রে !
প্রেমের কলি নব প্রেমের প্রানের ফুল,
আমার নব স্বাদে আছে তোর প্রানের রেশ
আমার যত যৌবন তার অর্দ্ধেক তুই।
তোকে আমি দিই আমার বুকের ফুল
রাখ রে তুই তোর খোঁপাতে,
ভরা আমার জীবন তোর রসের জাদুতে
মাতিয়ে রাখ আমায় এভাবেই।

আধুনিক

Pablo’s Rock Song

ফুল পাখি চাঁদ
বিলকুল বাদ
ইমোশন মাখো মাখো
নিজের পকেটে রাখো
ন্যাকা কথা ন্যাকা সুর ন্যাকা ন্যাকা গান
দিতে পারবো না গুরু জনতা যা চায়
যতই বলো না বস পাবলিক খাবে
গান হবে হিট আর অ্যাওয়ার্ড পাবে
আমি গাইবো প্যাশনেট লাভ সং
যাতে নেই ন্যাকামি নেই কোনো ঢং
ফুল পাখি চাঁদ
বিলকুল বাদ
ইমোশন মাখো মাখো
নিজের পকেটে রাখো
ন্যাকা কথা ন্যাকা সুর ন্যাকা ন্যাকা গান
দিতে পারবো না গুরু জনতা যা চায়
আমাদের গান নাকি আবোল তাবোল
চিৎকার চেঁচামেচি পাগল পাগল
আগেকার মতো নাকি আর গান হয় না
রক ভেতো বাঙালির পেটে সয় না
মাখো মাখো কথা
বলি না অযথা
তোমাকে চাই চাই শরীর প্রেম
তাই ফুল পরীর দেশে
আজ অবশেষে
নিজেই অশরীরী সেটাই প্রবলেম

আধুনিক

আমার বলার কিছু ছিলো না,

আমার বলার কিছু ছিলো না, না গো,
আমার বলার কিছু ছিলো না।

চেয়ে চেয়ে দেখলাম তুমি চলে গেলে,
তুমি চলে গেলে চেয়ে চেয়ে দেখলাম,
আমার বলার কিছু ছিলো না, না গো,
আমার বলার কিছু ছিলো না।

সব কিছু নিয়ে গেলে যা দিয়েছিলে,
আনন্দ,হাঁসি,গান, সব তুমি নীলে।
সব কিছু নিয়ে গেলে যা দিয়েছিলে,
আনন্দ হাঁসি গান সব তুমি নীলে।

যাবার বেলায় শুধু নিজেরই অজান্তে,
সৃতিটাই গেলে তুমি ফেলে, তুমি চলে গেলে-
আমার বলার কিছু ছিলো না, না গো,
আমার বলার কিছু ছিলো না।

দুঁহাতে তোমার ওগো এতো কিছু ধরে গেলো,
ধরলো না শুধু এই সৃতিটা,রয়ে গেলো শেষ দিন,
রয়ে গেলো সেদিনের প্রথম দেখার সেই ইতি টা।

কোথা থেকে কখন যে কি হয়ে গেলো,
সাজানো ফুলের বনে ঝড় বয়ে গেলো।
কোথা থেকে কখন যে কি হয়ে গেলো,
সাজানো ফুলের বনে ঝড় বয়ে গেলো।

সে ঝড় থামার পরে, পৃথিবী আঁধার হলো,
তবু দেখি দীপ গেছো জ্বেলে, তুমি চলে গেলে-
আমার বলার কিছু ছিলো না,

চেয়ে চেয়ে দেখলাম তুমি চলে গেলে,
তুমি চলে গেলে চেয়ে চেয়ে দেখলাম,
আমার বলার কিছু ছিলো না, না গো,
আমার বলার কিছু ছিলো না।

আধুনিক

আমার সব কথা মরে গেছে হায়! কিছুই বলা হলো না তোমায়।

আমার সব কথা মরে গেছে হায়!
কিছুই বলা হলো না তোমায়।
আমার সব কথা মরে গেছে হায়!
কিছুই বলা হলো না তোমায়।

মনের ক্যানভাসে আমি, কত ছবি আঁকি!
চোখের জলে মুছে, হারিয়ে যায় সবই।
মনের ক্যানভাসে আমি, কত ছবি আঁকি!
চোখের জলে মুছে, হারিয়ে যায় সবই।
কি করে মনের কথা
কি করে মনের কথা জানাবো তোমায় হায়!!
কিছুই বলা হলো না তোমায়।
আমার সব কথা মরে গেছে হায়!
কিছুই বলা হলো না তোমায়।

এ পৃথিবীর সবাই পর, কেউ আপন নয়।
এ পৃথিবীর সবাই পর, কেউ আপন নয়।
ওটা তোমার মনের কথা,
আমার মনের নয়!
এ পৃথিবীর সবাই পর, কেউ আপন নয়।
ওটা তোমার মনের কথা,
আমার মনের নয়!
আমার মন তো মরেই গেছে,
আমার মন তো মরেই গেছে,
তোমার অবহেলায় হায়!!
কিছুই বলা হলো না তোমায়।
আমার সব কথা মরে গেছে হায়!
কিছুই বলা হলো না তোমায়।।
উৎসর্গ: সজনী

আধুনিক

সজনী সজনী সজনী

সজনী সজনী সজনী,
তোমার ভালবাসায় আমি সিক্ত ঋনী!!
সজনী সজনী সজনী,
তোমার ভালবাসায় আমি সিক্ত ঋনী!!

প্রতি ক্ষণে ক্ষণে বাজে কানে,
প্রতি ক্ষণে ক্ষণে বাজে কানে,
তোমার হাসির ঝিলিক
চুড়ির রিনিঝিনি!!
সজনী সজনী সজনী,
তোমার ভালবাসায় আমি সিক্ত ঋনী!!

আ আ আ আ আ….
চৌচিড় এ হৃদয়ে তুমিই রাণী,
চোখে বর্ষা ঝরে প্রতি দিন-রজনী;
চৌচিড় এ হৃদয়ে তুমিই রাণী,
চোখে বর্ষা ঝরে প্রতি দিন-রজনী।
সজনী!
সজনী সজনী সজনী সজনী
তোমার ভালবাসায় আমি সিক্ত ঋনী!!

একদিন তোমার ভুল ভাংবেই জানি,
কাটবে আধাঁর তুমি মুছবে অশ্রু জানি।
একদিন তোমার ভুল ভাংবেই জানি,
কাটবে আধাঁর তুমি মুছবে অশ্রু জানি।
সেই ভাবনায় অাজো প্রহর গুনি,
সেই আশাতেই অাজো প্রহর গুনি;
শুনি তোমার আগমনী প্রতিধ্বনি!!!
সজনী,
সজনী সজনী সজনী সজনী
তোমার ভালবাসায় আমি সিক্ত ঋনী!!
সজনী সজনী সজনী,
তোমার ভালবাসায় আমি সিক্ত ঋনী!!
সজনী,
সজনী সজনী সজনী সজনী
তোমার ভালবাসায় আমি রিক্ত ঋনী!!

আধুনিক

সুন্দরীগো দোহাই দোহাই মান করোনা

সুন্দরীগো দোহাই দোহাই
মান করোনা
আজ নিশিথে কাছে থাকো
না বলো না

অনেক শিখা পুড়ে তবে
এমন প্রদীপ জ্বলে
অনেক কথার মরণ হলে
হৃদয় কথা বলে
না না
চন্দ্রহারে কাজলধোঁয়া
জল ফেলোনা

একেই তো এই জীবন ভরে
কাজের বোঝাই জমে
আজ পৃথিবীর ভালোবাসার
সময় গেছে কমে
একটু ফাগুন আগুন দিয়ে
না জ্বেলোনা

আধুনিক

দুটি পাখী দুটি তীরে

দুটি পাখি দুটি তীরে
মাঝে নদী বহে ধীরে।

একই তরু শাখা পরে-
ছিল বাসা লীলা ছলে,
অজানা সে কোন ঝড়ে-
ভেঙে নিল বাসাটিরে।

বিধাতার আভিশাপ
নিয়তির হল জয়,
ছিঁড়িল বীণার তার
মুছে গেল পরিচয়।

ছিল যেথা আলো হাসি
ফুলফল মধু বাঁশি,
আজি সেথা কিছু নাহি
বায়ু কেঁদে যায় নীড়ে।