ব্যান্ড

বাজী

তুমি আমার বায়ান্ন তাস
শেষ দানে ও আছি
তোমার নামে ধরেছি আমার
সর্বস্ব বাজী
সম্ভাবনার এ পিঠ ও পিঠ
শেষ মুদ্রায় রাজী
কার ঘরে যায় করতালি
উড়ছে আলোর বাজী

কার ঘরের দান ছুটছে ঘোড়ায়
দেখ ওই উল্লাসে গ্যালারী
পড়ছে ফেটে চিত চিতকার
কোন জুয়াড়ির বাড়ি
পাশার দান যাক না ঘুরে
কাল্ কে না হয় আজ ই

তুমি প্রথম বলিনা এমন
শেষ হতে পারো কি
তাই নিয়েছি শেষ বিকেলে
নি;স্ব হওয়ার ঝুকি
শেষ বিকেলের একরোখা জেদ
আশার ঘোরে বাঁচি

ব্যান্ড

বৃষ্টি

বৃষ্টি পড়ে অঝোর ধারায়
বৃষ্টি পড়ে লজ্জা হারায়
বৃষ্টি পড়ে জলে ভিজে
ওই মেয়েটি কে কি যে

ওই ছেলেটা আকাশ উপুড়
মনের ভিতর অলস দুপুর
বৃষ্টি পড়ে মনে মনে
বৃষ্টি পড়ে আলিঙ্গনে
বৃষ্টি পড়ে অঝোর ধারায়।।

বৃষ্টি পড়ে মনে মনে
বৃষ্টি পড়ে আলিঙ্গনে
জোছনারাতে নীল আকাশে
ছন্দে তালে অঝোর ধারায়
বৃষ্টি পড়ে অঝোর ধারায়।।

ব্যান্ড

চাঁদের শহরে

চাদের শহরে কতবার গিয়েছি চলে
এক্ টি বার দেখব বলে
কোন বাড়িতে ঘুমাও তুমি
কোন বাড়িতে জ্বোনাক জ্বলে

এখনো কি ঘুমাও আমাকে ভেবে
শহুরে হাওয়ায় খোজ আমার জোছনাকে
কথার তোড়ে ফোটাও গোলাপ ডালে ডালে।।

এক্ টি বার দেখব বলে
কোন বাড়িতে ঘুমাও তুমি
কোন বাড়িতে জ্বোনাক জ্বলে

এখনো কি সুখের স্রিতিতে হারাও
আড়ালে দুয়ার খুলে নিজের জন্য গাও
গানের মেঘে ঝরাও ব্রিষ্টি দু;খ ভুলে।।

এক্ টি বার দেখব বলে
কোন বাড়িতে ঘুমাও তুমি
কোন বাড়িতে জ্বোনাক জ্বলে

ব্যান্ড

জীবনমাঝি

জীবন্ মাঝি বৈঠা হাতে
যায় সে কূলের পানে
আসবে রে মরণ
নিঠুর ও মরণ

সুখের খোজে ওরে ও মন
পাল তুলিয়া দিলি রে নাও
জনমী তোর কাটল স্বপন
ধীরে ধীরে বৈঠা চালাও(২)
পাইবি কি তোর স্রোতের নাগাল
আসবে রে সময়

মাটির মাঝে আসবি ফিরে
কাল অথবা এই তো সময়
জেনেও তুই নদীর তীরে
খুজে ফিরিস কীসের আশায়
শ্রান্ত হবি ডাক এলে তুই
বুঝবি রে তখন

ব্যান্ড

নেই তুমি

জোছনার আলো হয়ে এসেছিলে তুমি
রংধনুর রং হয়ে একেছিলে ছবি
হঠাত এক ঝড় এসে ভেঙ্গে দিলো সবই
মেঘে ঢেকে গেলো আমার ই প্রিথিবী
নি;স্বঙ্গ আজ এই যে আমি
খুজে ফিরি আজো কোথায় তুমি
নদী যেমন মেশে মোহনায়
তেম্ নি আছো তুমি মনের আয়নায়

মনে পড়ে সেই দিন গুলি
আবেগে বলতে তুমি
যাবেনা আমায় ছেড়ে
কভু অন্য ভুবনে
হঠাৎ এক ঝড় এসে ভেঙ্গে দিলো সবই

এক্ সাথে কত তারা গোনা
এই মনে নীরবতা
কখনো বা আবেগে শুধু জড়াতে আমায়
হঠাত এক ঝড় এসে ভেঙ্গে দিলো সবই……..

ব্যান্ড

মানুষ বড় একা

এই কোলাহল এই লোকালয়
এত প্রিয়জন কেউ কারো নয়
জেনে রেখো শুধু
জীবনের ডাইরীতে অদ্রিশ্য কালিতে
এক্টি সত্য আছে লিখা
মানুষ বড় একা

কত ব্যাস্ততায় নিজেকে জড়ালে
কত প্রয়োজনে তুমি নিজেকে বিলালে
একবার জেনে রেখো শুধু
পাওয়ার হিসেবে তুমি কতটুকু পেলে
জীবনের ডাইরীতে অদ্রিশ্য কালিতে।

তোমার সাজানো পৃথিবী জুড়ে
তোমার ই আপন সুখ আপন কত
এইখানে তুমি বড় একা
সাগরের নি;স্বঙ্গ দ্বীপের মত
জীবনের ডাইরীতে অদ্রিশ্য কালিতে।

ব্যান্ড

আবেগের সুরে

আবেগের সুরে বেধেছি,অনুরোধ করেছি
অভিযোগ তুলেছি ,যেওনা ফেলে একাকী
এ রিদয় কবিতাতে লেখা তুমি
আছো যে অনুভবে জানলেনা তুমি

নীরবে গোধুলী ক্ষনে পুরে যাই এক্ লা
এভাবে হারিয়ে গেলে কি হবে বলো না
যে বিষাদ আমার মনে জানলেনা তুমি
রিদয়ের চাওয়া পাওয়া বুঝলেনা তুমি
আবেগের সুরে বেধেছি,অনুরোধ করেছি…….

অনুনয় তোমার ই কাছে অভিমান করো না
আবেদন করেছি শুধু ভেবে দেখো না
এ রিদয় তুমিহীনা কখনো ভাবিনি
হারাবো তোমার ছোয়া আগে তো বুঝিনি
আবেগের সুরে বেধেছি,অনুরোধ করেছি…………

ব্যান্ড

যেতে যেতে পরিচয়

যেতে যেতে পরিচয় কিছু কথা বিনিময়
চোখে ছিল অনুনয় ছিল না তো অভিনয়
এখনো সেই মুখ দিয়ে যায় কিছু সুখ আমাকে

থাকে কোথায় জানিনা,বলেনি তো ঠিকানা
ম্রিদু পায়ে শুধু যায় আসে অনুভবে
শত আশা বেধে যায় সে যে রিদয় ও মাঝে
যেতে যেতে পরিচয় কিছু কথা বিনিময়

দেখা যদি হয় আবার,ভুলে কোথাও দুজনার
পুরনো সে পরচয় ভুলে অভিমানে
বল্ বে কি কোথায় ছিলে তুমি এতদিন ধরে
যেতে যেতে পরিচয় কিছু কথা বিনিময়

ব্যান্ড

একাকী আমি

একাকী আমি সারাবেলা
সয়েছি স্রিতি অবহেলায়
তবে কেনো আবার চাওয়া পাওয়া(২)

হারিয়েছে অনেক সময় যা পিছু ডাকে আমায়
জানিয়েছে ফাগুন হাওয়া আজ খুজবেনা তোমায়
এই রিদয় অস্থিরতা তোমার স্রিতি ঘিরে
তবে কেনো আবার চাওয়া পাওয়া(২)

হারিয়েছে অনেক প্রহর শুধুই বিষন্নতায়
ঘুমিয়েছে সুখের স্বপন দু;স্বপ্ন রঙ্গীন আশায়
তাই রিদয় অস্থিরতা তোমায় কাছে টানে
তবে কেনো আবার চাওয়া পাওয়া(২)

ব্যান্ড

এভাবেই যদি

এভাবেই যদি কেটে যায় দিন যাক না
এভাবেই যদি অনিয়ম হয় হক না
প্রলয়ী আমি ছন্নছাড়া
সাজাই জীবন এলোমেলো একাকী

যেখানে ফুরায় এই পথ অচেনার ছরাছড়ি
যেখানে ঘুমায় এই রাত অবিনাশী জড়াজড়ি
সেখানে শুধাই এই গান অন্য সুরে
এভাবেই যদি কেটে যায় দিন যাক না ……।।

যেখানে ফুরায় আলো এই আমি জেগে উঠি
যেখানে সুখের সময় অসময়ে কেদে উঠি
সেখানে শুধাই এই সুর অন্য গানে
এভাবেই যদি কেটে যায় দিন যাক না ……।।

ব্যান্ড

আমি আর ভাব্ বোনা

আমি আর ভাব বোনা
মিছে আর ভাব বোনা
তোমাকে তোমাকে
যত কষ্টই হোক না
বিরহে আর কাদব না
পিছুটান কিছু থাক না
আমি ভাব বোনা আর অযথা

স্বপ্ন নাই আমার স্বপ্ন নাই
তাই বিশ্বাসে অস্তিত্ত নাই
ভেসে যেতে চাই দু;স্বপনে
যত কষ্টই হোক না………

যন্ত্রনায় ডুবে যেতে চাই
তাই শুন্যতায় একা থাক্ তে চাই
তবু ডাকবনা আমি তোমাকে
যত কষ্টই হোক না………

ব্যান্ড

অভিমানে থাকতে বলিনি

কি করে ভুলি তুমি আমার ছিলে
আমার ছিলে এই হৃদয় জুড়ে
এখন এখানে অথৈ আধার
নীরবতাই আছে সঙ্গী হয়ে।

ভুলে গেছো তুমি কিছুই বন্ধু আমি ভুলিনি
চলে গেছো তুমি অভিমানে থাকতে বলিনি।

চোখের বরষাই আপন হবে কোনদিন ভাবিনি
বিরহ স্মৃতি সঙ্গী হবে কখনো বুঝিনি
এসে দাঁড়াবে পাশে আমার অভিমানে কাউকেই ডাকিনি

ভুলে গেছো তুমি কিছুই বন্ধু আমি ভুলিনি
ছলে গেছো তুমি অভিমানে থাকতে বলিনি।

কতটুকু দোষ ছিল আমার বলে ত যাওনি
কি নিয়ে থাকব বেচে আমি কখনো ভাবনি
এসে দাড়াবে পাশে আমার অভিমানে কাউকেই ডাকিনি

ভুলে গেছো তুমি কিছুই বন্ধু আমি ভুলিনি
ছলে গেছো তুমি অভিমানে থাক তে বলিনি।।

ব্যান্ড

জোসি প্রেম

গুনে রাধা কৃষ্ণ প্রতি দিনক্ষণ
কানে কানে বলে গেলো জয় বৃন্দাবন
জোসি প্রেম দেয়া নেয়া প্রেম
শিরির জন্য ফরহাদ হল মুসাফির
প্রেমে নেই ভেদাভেদ আমির ও ফকির
জোসি প্রেম দেয়া নেয়া প্রেম
রোমিও জুলিয়েট মৃত্যুহীন প্রাণ
ভালোবেসে গেয়ে গেলো জীবনের গান
জোসি প্রেম দেয়া নেয়া প্রেম
লাইলী আর মজনু প্রেমে সাইমুম
জলহীন মরুভুমি সাহারার ধুম
জোসি প্রেম দেয়া নেয়া প্রেম
বেহুলার লক্ষিন্দর নীল হল বিষে
বরষার সেই বিষ আজো আছে মিশে
জোসি প্রেম দেয়া নেয়া প্রেম

জয় জয় যমুনার বৃন্দাবন জয় বৃন্দাবন
শিরির জন্য ফরহাদ হল মুসাফির হল মুসাফির

ব্যান্ড

দিওয়ানা মাস্তানা

দিওয়ানা দিওয়ানা তোমার প্রেমের দিওয়ানা
তুমি বুঝলানা বুঝলানা আমার মনের বেদনা
এত সস্তা না সস্তা না রাস্তা ছেড়ে যাবো না
আমি শেষ দেখে দেখে যাবো খালি হাতে যাবো না
আমি দিওয়ানা আমি মাস্তানা

প্রেমের এই দুনিয়ায় প্রেমেই শক্তি প্রেমেই মুক্তি
তুহি মেরি চান্দ সিতারা তুহি মেরি জানে জান
মন করে আন ছান তান প্রাণে প্রাণ লাগে টান
প্রেম নগরের প্রেম খানা প্রেমের বেচাকেনা
আমি দিওয়ানা আমি মাস্তানা

আরে বক্তা দেবো কি খানা মক্কা দে ইনজিনখানা
লাইন ছাড়া চলে না মন চলছে মদিনা
কপালে যা আছে আরে মুছতে তুমি পারবেনা
যা ভাবছো যা তা না ভেবে কূল পাবেনা
লাভ লোক্ সান বুঝিনা আমি দিওয়ানা

ব্যান্ড

সুখ পাখি

সুখ পাখি আইলো উড়িয়া
বহুকাল বহুদেশ ঘুরিয়া
আমি বাইন্ধা রাখুম তরে এবার
মনের খাচায় পুরিয়া(২)

সুখ পাখি আমি তরে সব দেব
মনের মত খেতে দেব নাইতে দেব(২)
বুক ভরা সোহাগ দেব মুখ ভরা হাসি দেব
শুধু উড়তে দেব যদি তুই কথা দেস
আমায় যাবিনা ছাড়িয়া(২)

সুখ পাখি ময়না আমার কথা কয়না
খাচার সোহাগ যেন তার মনে সয়না(2)
কিছু তো খায়না নাইতে ও চায়না
শুধু উড়তে যে চায় কি যে করি তারে নিয়ে
আমায় যাবে কি ছাড়িয়া(২)