ব্যান্ড

উচ্চ পদস্থ তদন্ত কমিটি

বিশ্ববিদ্যালয়ে সারারাত অবিরাম গোলাগুলি
আর পরদিন বীভতস মরদেহের দেখি প্রতিকৃতি
আর পত্রিকার আজ বাড়তি কাটতি
শুনি প্রতিবাদ প্রতিরোধ কর্মসুচী
মিছিল শেষে পন্ড হল ভন্ড শোক্ সভা
তীব্র নিন্দা কড়া প্রতিবাদের দরদ উতকন্ঠা
সমবেদনার গভীর অভয় দেখিয়ে চলে
প্রাগৈতিহাসিক বাগ্ ধারা
আর আমি শুনি মা বোনের কান্না আর বাবার গোঙ্গানি
শুনি গুপ্ত প্রেমিকার আর্তনাদ আর
নির্লজ্জ আস্ফালনে খুনিদের জয়ধ্বনি
গঠিত হয়েছে উচ্চ পদস্থ তদন্ত কমিটি
সৌজন্যমুলক স্বান্তনার সমিতি
আর আম্ লা তান্ত্রিক জটিলতার মুখে
গনতন্ত্র কেন বিপথগামী
উচ্চ পদস্থ তদন্ত কমিটি
ন্যায় বিচার পাবার আশ্বাসের সমিতি
আর ন্যায় বিচার যদি কেউ না পায়
রয়েছে উচ্চ পদস্থ তদবিরি

ফটাশ করে কাটল খুনি আর এক তরুনী
ট্রাকের চাপার তলে মৃত্যুর বর্ণনা ভয়ংকরী
তাই বান্ধবীর আকুল নতুন দাবি
চাই স্বাভাবিক মৃত্যুর গ্যারান্টি
পত্রিকাতে বান্ধবীদের শুনি কান্নার ধ্বনি
আর উত্তেজক স্মরণসভায় আছে
কিছু ফাকা বুলি
ট্রাকের মালিকরা রেখেছে চিন্ন কেনো
জবাব চাই নেতা নেত্রী
আর আমি শুনি মা বোনের কান্না আর বাবার গোঙ্গানি
শুনি নিষ্পাপ শিশুর আর্তনাদ আর
নির্লজ্জ আস্ফালনে খুনিদের জয়ধ্বনি
গঠিত হয়েছে উচ্চ পদস্থ তদন্ত কমিটি
সৌজন্যমুলক স্বান্তনার সমিতি
আর সড়কের নাম পাল্টে স্মরণ করি
হয়ে গেছে যারা আজ প্রাণহানি
উচ্চ পদস্থ তদন্ত কমিটি
এ মিথ্যে আশা আশ্বাসের সমিতি
আর সত্য মিথ্যা বেচেই রবে
জানবেনা কখনো বাঙ্গালি

৯২-এর ২১শে জুনে প্রেসক্লাব অভ্যন্তরে
বেত্রাঘাত, রাইফেল বাট আর কাদুনে গ্যাসে
বজ্র ভুমিকার ঠা ঠা পরলো মুক্ত চিন্তার মন্দিরে!
মন্ত্রী মহাদয়ের অসীম দয়ায় সাংবাদিক হাসপাতালে
শত্রু-মিত্র ভাগ করে দুঃখ একই শয়নকক্ষে
আবার পত্রিকার আজ বাড়তি কাটতি,
আর মালিক পক্ষ পাজেরো জীপে
আর আমি শুনি মা বোনের কান্না আর বাবার গোঙ্গানি
শুনি নিষ্পাপ শিশুর আর্তনাদ আর
নির্লজ্জ আস্ফালনে পুলিশের বাড়াবাড়ি
গঠিত হয়েছে উচ্চ পদস্থ তদন্ত কমিটি
দৃষ্টান্তমুলক শাস্তির প্রতিশ্রুতি
আর দৃষ্টান্ত কখন চোখেও দেখিনি আশাও করিনি
উচ্চ পদস্থ তদন্ত কমিটি
উচ্চ পদে গলাগলি আর দলাদলি
আর গনতন্ত্রের নামে হচ্ছে ডাকাতি
দোহাই তোমার মুক্তবাজারের অর্থনীতি
আর এই প্রচন্ড গরম
ছেড়ে দাও আমাদের
আম্রা অনেক দেখেছি (২)

ব্যান্ড

বেদনার রং

বেদনার রং কি বলো
চোখের ই রং কি জানো
জানি যে বল্ বে
নীলাকাশের মেঘটা কালো
সে মেঘের ই ছায়ায়
আমি এক প্রেমী অসহায়

পর্বতের চুড়া থেকে
যে চিল উড়ে যায়
তারই মাঝে আমি যে বিলীন
তোমারই সত্তায় এভাবেই মিশে যাব
আমাকে ভেঙ্গেচুড়ে
নিজের আদল্ টাকে হারাবো
তবুও আমার হাসিটা পাবে
তোমার মত

সাগরের ও গভীরেতে
মুক্তো শিকারের আশায়
যে শিকারী বাজী ধরে জীবনে
মণিমুক্তো সে রত্ন
এক নিঃশ্বাসে তুলে নেবো
দ্বিধা ভুলে তোমাকে
প্রেমেরই মুকুট পড়াবো
আকাশে আজ দেখো
বাতাসের আল্পনা কত শত

ব্যান্ড

পাপের স্রোতে

পাপের স্রোতে ভেসে চলেছো কোথায় তুমি
কোনদিন ক্ষমা পাবেনা
জীবনের সব সাধ করেছো পুরণ
কখনো কি ভেবে দেখো না
এসো এসো ফিরে পাপের মোহনা ছেড়ে
এ সময় আর পাবেনা

অগ্নিগিরির মত জ্বল্ বে অনলে তুমি
সে অনলে সুখ পাবেনা
নাগিনীর বিষ নিঃশ্বাসের ছোয়া থেকে
কখনো রেহাই পাবেনা
এসো এসো ফিরে পাপের মোহনা ছেড়ে
এ সময় আর পাবেনা

শেষ বিচারের দিন পাবেনা কুল খুজে
হারাবে যে সব কামনা
বিন্দু বিন্দু করে হিসেব দিতে হবে
কখনো কি ভেবে দেখোনা
এসো এসো ফিরে পাপের মোহনা ছেড়ে
এ সময় আর পাবেনা

ব্যান্ড

তোমাকে আজ বারে বারে

ও খেয়ালি মেয়েগো
কোন খেয়ালে হারালে
বল না কোথায়, কোন ঠিকানায়
কিছু লোক জানে না তো অভিমান
কোন নিল বেদনায়……।।

তোমাকে আজ বারে বারে
খুব বেশী মনে পড়ে
ভুলিনি তোমায়
যতো ব্যাথাই দাও না কেন
তবু তুমি আছো জেনো
আমার এ হৃদয়ে ।।

অভিমানি মেয়েগো
মন দেয়াতে নেয়াতে
বলো না আমার ভুল ছিল কি
দূর থেকে বহু দূরে হারালে
একবারও না তুমি দাঁড়ালে
তোমাকে আজ বারে বারে
খুব বেশী মনে পড়ে
ভুলিনি তোমায়
যতো ব্যাথাই দাও না কেন
তবু তুমি আছো জেনো
আমার এ হৃদয়ে ।।

অন্তবিহীন পথ
আমি ভাঙবো যে একা
কোন দিন ভাবি নি তো এভাবে
সবি মেনেছি সবই দেখেছি
তোমাকে আজ বারে বারে
খুব বেশী মনে পড়ে
ভুলিনি তোমায়
যতো ব্যাথাই দাও না কেন
তবু তুমি আছো জেনো
আমার এ হৃদয়ে ।।

ব্যান্ড

কালো মাইয়া

কালো মাইয়া কালো বইলা
কইরো না যে হেলা
ওরে সাদা মুখে নাইরে যাহা
কাল দেহে আছে তাহা
ও কি হায় হায়
কালো মাইয়ার দুঃখ
কেউ বুঝতে না চায়

লিলি শেফালী আর বকুল
সুন্দর যে লাল গোলাপ ফুল
কত ফুল যে আছে দুনিয়ায়
ওরে সবচাইতে দামী ফুল যে
কালো গোলাপ দুনিয়ায়
ও কি হায় হায়
কালো মাইয়ার দুঃখ
কেউ বুঝতে না চায়

সুন্দর মুখের মিষ্টি কথা
শুনে সবাই বিভোর হয়
যায় না বোঝা মনটা কেমন হয়
ওরে কি আছে লুকাইয়া
সাদা অন্তরের ও ভিতরে
ও কি হায় হায়
কালো মাইয়ার দুঃখ
কেউ বুঝতে না চায়

মধুরকন্ঠী কোকিল কালো
পাখির রাজা ফিঙ্গে কালো
সবাই ভালোবাসে কালো চুল
ওরে সব রং মিশে হয়
যেই রং সেইটা কালো রে
ও কি হায় হায়
কালো মাইয়ার দুঃখ
কেউ বুঝতে না চায়

ব্যান্ড

তুমি সুখে নেই

কি আশাতে চলে গেছো
কি সে ছিলো স্বপ্ন আমার
সেই আশা কি হয়েছে পুরণ তোমার
ভালোবাসা নিবিড় বাধন
বন্য সুখে হারালে ফাগুন
সুখ কেনো আজ হয়েছে অসুখ আমার
এখন তুমি সুখে নেই।

সুখী কোন কারণেই তুমি হতে পারো না

অধরা সেই সুখ খুজে
দিয়েছো তুমি ভেঙ্গে আমায়
করলে অসহায় এই আমায়
কেনো সে তোমায় দুঃখ দিলো
সে কি মোর অভিশাপ ছিলো
ভরে গেলে কেনো আজ অপুর্ণতায়
এখন তুমি সুখে নেই।

সুখী কোন কারণেই তুমি হতে পারো না

কেনো আমি আজ আসবনা
দেবোনা তোমায় যন্ত্রনা
ভাংবনা তোমাকে আঘাতে
তারাভরা আকাশে তোমার
জ্বালাবো আগুন বেদনার
বুঝবে তবে কি কষ্ট আমার
এখন তুমি সুখে নেই।

সুখী কোন কারণেই তুমি হতে পারো না

ব্যান্ড

মিষ্টি মেয়ে

মিষ্টি মেয়ে , চোখটি তোলো
প্রথম তোমার সাথে দেখা
আর এইতো প্রথম ভালো লাগা ।।

কপালেতে নীল টিপ দিয়েছো
লাগছে মন্দ নয় ।
অদূর কোনের এই হাসিটুকু
আবার কবে দেখবো, আবার কবে দেখবো ।।

কবরীতে মাধবী সাজিয়ে
রাঙ্গিয়ে দিলে এ মন ।
স্বপ্ন বিভোর মোর এই দুটি চোখ
তোমায় শুধু খুঁজবে, তোমায় শুধু খুঁজবে

ব্যান্ড

বন্যেরা বনে রয়

বন্যেরা বনে রয় তুমি এ বুকে
তুমি সুখী হবে আমার সুখে
তোমারই জন্য শুধু আমারই জন্য
চিরন্তন এ কথা সত্য রবে

সুর্যটা ভালোবাসে অই চাদকে
নিজের আলো দিয়ে সাজায় তাকে
কিংবদন্তী হয়ে আকাশেই নয়
তার চেয়ে সুন্দর তুমি বিস্ময়

ঝরণা ছন্দ খোজে তোমার ই চলায়
ঝিনুক মুক্তা গড়ে পিদিম পোহায়
এই সময় যে অধর আমার
তোমার অধরে মেলাতে চায়

ব্যান্ড

একাকী আকাশের সন্ধাতারা

একাকী আকাশের সন্ধাতারা
আমার ই মত করে আত্নহারা
ফেরারী গোধুলী ছোয়া পাখি
আমার ই মত করে সঙ্গীহারা
একা(২) দৃষ্টির সীমানায় কেই নেই আজ
একা(২) চোখের এ জলে হৃদয় একাকার

এ বর্ষা আপন হবে বুঝিনি ভাবিনি
এ জোছনা মলিন হবে কখনো ভাবিনি
এসে দাড়াবে পাশে আমার
জুড়িয়ে দেবে বুকের হাহাকার
একা(২) দৃষ্টির সীমানায় কেই নেই আজ
একা(২) চোখের এ জলে হৃদয় একাকার

রোদেলা দুপুর মন জুড়ে শিশিরের কথা কয়
স্বপ্নপুব এক আমি এ আমার রাত হয়
এসে দাড়াবে পাশে আমার
জুড়িয়ে দেবে বুকের হাহাকার
একা(২) দৃষ্টির সীমানায় কেই নেই আজ
একা(২) চোখের এ জলে হৃদয় একাকার

ব্যান্ড

সুখী ছেলে

ঘর ছাড়া এক সুখী ছেলে
আন্ মনে আজ এই ক্ষণে
চলে যাবে দুরে কোথাও
ঠিকানাগুলো ছিড়ে ফেলে

ইচ্ছে ছিল এই ছোট্ট মনে
সবার চাওয়া বুকে নিয়ে
দুঃখগুলো সুখ বানিয়ে
সবার মাঝে ছড়িয়ে দিবে(২)
ছুয়ে যাবে সুদুর আকাশ
একদিন সে এই জীবনে

ছেলেটি আজ বড় হয়ে
অবাক চোখে তাকিয়ে দেখে
যত সুখ দুহাতে জড়িয়ে
একা হল সে এই জীবনে(২)
চাওয়াগুলো পাওয়া হয়ে
সবাই গেছে হারিয়ে

ব্যান্ড

আমিও মানুষ

যদি ভুল করে তোমাকে চাই
বলো আমার কি দোষ
যদি মন ভালবাসে তোমায়
বলি আমিও মানুষ
প্রিয়া ক্ষমা করো আমাকে
পারিনি ভুলে যেতে তোমাকে
আমার কি দোষ
আমিতো মানুষ

শুধু কষ্টকে সাথী করে
ভেবেছি চলে যাবো বহুদুরে।

তবু মন পিছু ফিরে চায়
আমার কি দোষ
আমিতো মানুষ

শুধু সৃতিগুলো রেখো সাথে
কখনো যদি আমায় মনে পড়ে।

তবু মন পিছু ফিরে চায়
আমার কি দোষ
আমিতো মানুষ

ব্যান্ড

এই রুপালী গিটার

এই রুপালি গিটার ফেলে
একদিন চলে যাব দুরে, বহুদূরে
সেদিন অশ্রু তুমি রেখো
গোপন করে।

মনে রেখো তুমি
কত রাত কত দিন
শুনিয়েছি গান আমি, ক্লান্তিবিহীন
অধরে তোমার ফোঁটাতে হাসি
চলে গেছি শুধু
সুর থেকে কত সুরে।

এই রুপালি গিটার ফেলে
একদিন চলে যাব দুরে, বহুদূরে
সেদিন অশ্রু তুমি রেখো
গোপন করে।

শুধু ভেবো তুমি
অপরাধ ছিল কার
কাটিয়েছি রাত তবু, নিদ্রাবিহীন
বেদনা আমার হয়েছে সাথী
চলে গেছি আমি
কোনো স্মৃতি পুরে।

এই রুপালি গিটার ফেলে
একদিন চলে যাব দুরে, বহুদূরে
সেদিন অশ্রু তুমি রেখো
গোপন করে।

ব্যান্ড

বেলা শেষে

বেলা শেষে গানে
কেনো কেদেছিলে
কেনোই বা চলে গেলে
বুঝিনিতো আগে

শত ব্যথা দুঃখ জমাট বেধে
রয়েছে তোমার বুকের মাঝে
দারুন শোকে(২)
চারিদিকে সুখের ছোয়া
আমি তোমার দুঃখের সাগরে

নিভে গেছে মন্ টা চাদের আলো
জ্বলেনা তো আর তোমার বুকে
দারুন শোকে(২)
চারিদিকে দেখি সেই মনের আধার
তোমার হৃদয় গভীরে

ব্যান্ড

ওই এলো রে

ওই এলো রে ওই এ লো রে ওই এলো রে বান
আমার মন পবনের সাম্পান
উজানে ধইরাসে টান
উজানে ধইরাসে টান
আমার মন পবনের সাম্পান

মন্ মাঝি তোর বৈঠা নে রে
গাইবো না সেই গান
কোন বন্দরে পাবো জানি
তোমার ই সন্ধান(২)
আমার মন পবনের সাম্পান
উজানে ধইরাসে টান
উজানে ধইরাসে টান
আমার মন পবনের সাম্পান

চাইয়া থাকো পথপানে
ভাইঙ্গা অভিমান
ভবের মেলায় সঙ্গী হবো
থাক্ তে মনপ্রাণ(২)
আমার মন পবনের সাম্পান
উজানে ধইরাসে টান
উজানে ধইরাসে টান
আমার মন পবনের সাম্পান

ব্যান্ড

ভীরু ভীরু পায়ে

ভীরু ভীরু পায়ে এসেছিলে কাছে
কোন সে সুরে বেধেছো হৃদয়
মনে পড়ে আজো সেই হাসির ও ছোয়ায়
দুরে দুরে থেকে বলেছো কথা
হঠাত করে যেনো ঝড়ের খেলা
ভেঙ্গে দিল সেই সময়
এলোমেলো হয়ে গেল
সাজানো নকশীকাথা
হলনা বলা তোমায়

ফিরিয়ে দেব হাসি তোমার
আমাদের সুরে জানি যে আবার
ফুল ফুটবে কোনদিন আবার
নতুন ভোরে ভালোবাসার চাদরে(২)
না কেদোনা না তুমি দুঃখ পেওনা
এ সুর মুছে ফেলো না ভুলো না
জানি তবু তুমি চলেই যাবে
দুচোখের সীমানা ছেড়ে
তাই তো এলোমেলো হয়ে গেল
সাজানো নকশীকাথা
হলনা বলা তোমায়