ব্যান্ড

প্রশ্ন

তুমি নিজে নিজে প্রশ্ন করে দেখ
দুঃখ দিতে চেয়েছিলে কৌশলে অভিনয়ে
মেতেছিলে আহা …

তুমি ভেবেছিলে পড়বো ভেঙ্গে
আমি এক কথাতেই চূর্ণ হয়ে যাবো
সেই থেকে হায় এখনো আমি একা …

এতদিন পরে ও প্রশ্ন জাগে শুধুই কি হেরেছি আমি
হৃদয় ভাঙ্গার সেই নিপুন খেলায় একটু ও কি হারোনি তুমি …

এখনো রাত কাটে তোমারই প্রতীক্ষায়
এখনো স্বপ্ন মনে নতুনের বারতায়
একা আমি একা জীবন মরুভূমি …

আবেগে আপ্লুত এ নিশীত হৃদয়
কাঁদে নির্জনে তবুও থাকে কিছু সংশয়
একা আমি একা জীবন মরুভূমি …

ব্যান্ড

ভুলে গেছি কবে

ভুলে গেছি কবে
এক জোছনা রাতে
আধো আলোতে আর আঁধারে

মন ময়ূরী সাঁজে,
উপচে পরা ভাবে, বাহু যুগলে হারিয়ে গেলে

যা ছিল আড়ালে পরিচয়
বুঝিনি কখন তা হয়ে গেল পরিণয়
শুধু বুঝেছি এই হৃদয়ে
যে ছোঁয়া লেগেছে তা জ্বালাময়।

তুমি আমার সুরে সুরে
আছো হৃদয় জুড়ে
স্বপ্ন কথো কল্পনায়
দিগন্তের একি ঠিকানা
যেখানে সীমানা
তুমি আমি তেমনি
এক হয়ে মিশে যাই

আজো মনে পড়ে এক্লা বসে ঘরে
মিছে আলাপন আর দৃষ্টিভ্রম
স্পর্শকাতরতা ভাংল অসারতা
জোড়া অনলে তুমি জূড়ে গেলে

যা ছিল আড়ালে পরিচয়
বুঝিনি কখন তা হয়ে গেলো পরিণয়
শুধু বুঝেছি এই হৃদয়ে
যে ছোঁয়া লেগেছে তা জ্বালাময়

তুমি আমার সুরে সুরে
আছো হৃদ জুড়ে
স্বপ্ন কথো কল্পনায়
দিগন্তের একি ঠিকানা
যেখানে সীমানা
তুমি আমি তেমনি
এক হয়ে মিশে যাই

দিন গুলো হারিয়ে যায়
বহমান স্রোতের ধারায়ে

মন ত আজ ও পরে আছে
তোমাকে পাবার আশায়

ব্যান্ড

অভিমানে নয়

অভিমানে নয় কিছুটা অভিযোগ নিয়ে,
অন্য কিছু নয় শুধু তোমাকে শুধাই,
কতটা এই আমায় আশা হত করে
তুমি সুখ খুজে পাও আনমনে,……

নীরবে কত অশ্রু বিনিময়
তোমার অমন হৃদয় ফিরে পাবে চেতনায় ,
কত আত্মত্যাগের বিনিময়
তোমার অতৃপ্ততা অবসান হয়ে যায়।

জানিনা কি অভিরুচির বশে
দূরে চলে যাও তুমি অন্তহীন পথে,
যন্ত্রণা কেন সঙ্গী হয়ে রই
এই আমায় ঘিরে অশুভ প্রহর হয়ে।
সঙ্গিনী তুমি কি তবু সুখী আনমনে

নীরবে কত অশ্রু বিনিময়
তোমার অমন হৃদয় ফিরে পাবে চেতনায় ,
কত আত্মত্যাগের বিনিময়
তোমার অতৃপ্ততা অবসান হয়ে যায়।

ব্যান্ড

এই দিন চিরদিন রবে

এই দিন চিরদিন রবে
কেউ তা ভেবোনা
একদিন সাথী হারা হবে
কেউ তো রবেনা

একদিন সব খেলা ফেলে
একা পথে যেতে হবে চলে।।

এ জীবন যতদিন তোমারই
সত্যর পথ খুজে নাও
এ রঙিন হাসি গান সুখেরই
স্বপ্নের দিন ভুলে যাও।।

একদিন সব খেলা ফেলে
একা পথে যেতে হবে চলে।।

এই মন কত খেলা খেলেছে
মিথ্যের হাসি নয়নে
এই পথ আলো হয়ে মিশেছে
জীবনের শেষ যেখানে।

একদিন সব খেলা ফেলে
একা পথে যেতে হবে চলে।।

ব্যান্ড

একাকী

রাত্রি অনেক হল
চোখে নেই কোন ঘুম
অপরুপ জোছনায়
অযাচিত বেদনা
আজও মোরে কাঁদায়
আমি একাকী একাকী একাকী
বড় একাকী একাকী
আমি একাকী আহা হা হা
বড় একাকী একাকী।।

কত সুরের মালা গেঁথেছি যতনে
আরও কত কথা
তুমি কি বোঝনি তা?
তবু তুমি কেন?
তুমি আসোনি
ভালবাস নি বাস নি
তুমি আসো নি আহা হা হা ভালোবাসো নি।।

বিষণ্ণতার আড়ালে তোমার ঐ প্রতিশ্রুতি
আমার সকল অহংকার কেন কেড়ে নিলে
অবচেতন এ রাতে
বিনিদ্র রাত্রি যাপন
অশ্রুসজল এ দু চোখে
দুঃখ হল আপন।

তুমি আসোনি আস নি আস নি
ভালবাসনি বাসো নি
তুমি আস নি আহা হা হা ভালোবাস নি।।

ব্যান্ড

আমার প্রথম

আমার প্রথম সেই কলেজ জীবন
তোমাকে ঘিরে ছিল স্বপ্ন যেমন।
আমার প্রথম সেই নতুন জীবন
তোমাকে দেখে শুরু হল প্রথম।

দিঘীর পাড়ে, সেই বকুল ছায়ায়,
তোমার পাশে বসে মধুর মায়ায়,
পৃথিবীকে স্বর্গ ভেবেছি তখন।

আমার প্রথম সেই কলেজ জীবন
তোমাকে ঘিরে ছিল স্বপ্ন যেমন।
আমার প্রথম সেই নতুন জীবন
তোমাকে দেখে শুরু হল প্রথম।

তোমার মাঝে আমি মিশেছিলাম,
জানিনা কি ভুলে পেয়ে হারালাম,
আঁধারে ছেয়ে গেল আমার ভুবন।

আমার প্রথম সেই কলেজ জীবন
তোমাকে ঘিরে ছিল স্বপ্ন যেমন।
আমার প্রথম সেই নতুন জীবন
তোমাকে দেখে শুরু হল প্রথম

ব্যান্ড

পাতা ঝরে যায়

পাতা ঝরে যায় শুধু নিরালায়
নতুন পাতা গড়ার আশায়
দূরে রয়েছি বিরহী ছায়ায়
নিবিড় করে পাবার আশায়।।

ফুল ঝরে যায় কেন কি ব্যাথায়
সে তো নতুন কুড়ির ইশারায়
প্রাত বয়ে যায় ভোরের আশায়
নীরবতারই এ আধারে।।

ভালোবাসা নিয়ে কাছে আশা
জানো না কি নেশা হারাবার
নদী বয়ে যায় , কেন কি নেশায়
সে তো পূর্ণ হতে মেশে মোহনায়।।

ব্যান্ড

ভীরু মন

আরেক নতুন গান নিয়ে
শুরু হলো এ সন্ধ্যা বেলা
আবার সে একই অনুরোধ
স্বেচ্ছায় এ মনটাকে
আমি করবো না প্রতারণা
কাঁদে এ আমার ভীরু মন।।

তোমারই এত সুখের ছড়াছড়ি
আমি দেখেছি নিরব আড়াল থেকে
তোমারই এত ভাল থাকা দেখে
আমি পারি নি দিতে শান্তনা মনে।

স্বেচ্ছায় কোন স্বপ্নকে
ধরে রাখবো না হৃদয় অনলে
এ আমার ব্যথার অবসর
নিঃস্বার্থ সন্দেহ
মনে থাকবে না গহীন দহনে
কাঁদে এ আমার ভীরু মন।

তোমারই এত সুখের ছড়াছড়ি…।

নির্ভয় কোন ভাবনা আসে না মনে
আমার এ ভীরু মন শুধু প্রশ্ন করে
এ মিছে জীবন চেয়ে মরণ ভাল না
আমি আছি তোমার প্রতিক্ষায়।

আবার এক ভোরে
আমি চাইবো না তোমায় রেখে
আসুক কোন নতুন প্রেমের মুখ
অকাল বোধনে
আমি চাইবো না তোমায় রেখে
কাঁদে এ আমার ভীরু মন
তোমারই এত সুখের ছড়াছড়ি
আমি দেখেছি নিরব আড়াল থেকে
তোমারই এত ভাল থাকা দেখে
আমি পারিনি দিতে শান্তনা মনে

ব্যান্ড

তোমার আশায়

মনের জানালা খুলে রেখেছি
শুধু তোমার আশায় আশায়
তুমি এলেনা ছুয়ে দিলে না হৃদয়।

সোনালি রোঁদে শিশির যেমন
রঙে রঙে হারায়
গোধূলি ক্ষণে আকাশ যেমন
সাঝেরও প্রদীপ জ্বালায়
আমি সেই ভোরে তোমাকে
ফিরে পেতে চাই
আমি সেই সাঁঝে তোমাকে
ফিরে পেতে চাই||

‘’বুকেরই গভীরে তুমি শুধু তুমি
সুখেরই স্বপনে তুমি শুধু তুমি’’

||বুকেরই গভীরে তুমি শুধু তুমি
আছো কি মায়া জড়িয়ে
সুখেরই স্বপনে তুমি শুধু তুমি
যেও না কভু হারিয়ে
আমি রাত জাগা প্রহরে একা ভেবে যাই
শুধু যাই ডেকে তোমাকে তুমি পাঁশে নাই||

||ফাগুনে শ্রাবণে তুমি শুধু তুমি
দিয়েছি এ মন তোমাকে
জীবনে মরনে তুমি শুধু তুমি
যেও না ভুলে আমাকে ||

||মনের জানালা খুলে রেখেছি
শুধু তোমার আশায় আশায়
তুমি এলেনা ছুয়ে দিলে না হৃদয়
আমি রাত জাগা প্রহরে
একা ভেবে যাই
শুধু যাই ডেকে তোমাকে
তুমি পাঁশে নাই||

ব্যান্ড

রাজাকারের তালিকা চাই

কোনো রূপকথা গল্প গাঁথা নয়
আমার স্মৃতি কলুষিত বিস্ময়
আমি দেখেছি ধর্ষিত বাংলা মায়ের মুখ
ছিল বিজাতী শত্রুর জয়

শুনি সেই মহান নেতার বাণী :
“রক্ত যখন দিয়েছি, রক্ত আরো দেব,
এদেশের মানুষকে মুক্ত করে ছাড়ব ইনশাল্লাহ
এবারের সংগ্রাম আমাদের মুক্তির সংগ্রাম
এবারের সংগ্রাম স্বাধীনতার সংগ্রাম”

ধীরে ধীরে জাগে বিদ্রোহী এদেশ
বুকের তাজা খুনে রাঙা বেশ নিয়ে
আঘাত হানে ভেঙে দিতে শোষকের প্রাসাদ
স্বাধীনতার স্বপ্নতলে এলো সেই রাত।

এলো সেই প্রথম বিদ্রোহী বীরের মহান কণ্ঠস্বর :
“I, Major Ziaur Rahman, do hereby declare,
the Independence of Bangladesh,
on behalf of our great national leader
Bongobondhu Sheikh Mujibur Rahman”

কেড়ে নিয়েছে ওই হায়নার দল
ধর্ষিত মায়ের চোখের জল
লাখো লাখো শহীদ- তোমাদের কথা ভুলিনি
জীবন দান যদি মহান মূল্য হয়
তোমরাই তো চির বিস্ময়
তোমাদের সমমূল্য বিশ্বে কোনো জাতি আজো দেয়নি
তবু কেন সেই থেকে মোরা স্বাধীনতার নামে পরাধীন
নিষ্পেষিত গোটা জাতি ওই রাজাকারের হাতে?

আর নয়, আর কতকাল তারা পাবে প্রশ্রয়!
পরাজিত সব দালাল আজ দাও পরিচয়
আজ যারা এই মাটিতে হাতিয়ার শানে
আজ যাদের রক্ত চোখ মোদেরই পানে
ওই রাজাকার ছেড়ে যা এই দেশটা আমার
আরেকটি মুক্তিযুদ্ধ করবে তোদের চির অবসান,
আসছে এই প্রজন্ম মুক্তিযোদ্ধাদেরই সন্তান

আর নয়, আর একটিবারও দেব প্রশ্রয়
এবার সব দালালের আজ দাও পরিচয়
আজ যারা এই মাটিতে হাতিয়ার শানে
আজ যাদের রক্ত চোখ মোদেরও পানে;
ওই রাজাকার ছেড়ে যা এই দেশটা আমার
আরেকটি মুক্তিযুদ্ধ করবে তোদের চির অবসান
আমরা এই প্রজন্ম মুক্তিযোদ্ধাদেরই সন্তান।

আমরা এই প্রজন্ম রাজাকারের তালিকা চাই
লাখো শহীদের সাথে মুক্তিযোদ্ধা আমরা সবাই।।