ছায়াছবি

রাধে মনটা রেখে এলি বল কোন মথুরায়

রাধে..রাধে..
রাধে মনটা রেখে এলি
বল কোন মথুরায় ?(২)
একবার মন দিলে হায় রে-
তারে একবার মন দিলে হায় রে-
আর কি ফেরানো যায়!
রাধে মনটা রেখে এলি
বল কোন মথুরায়?(২)

যে ডোরের ওই বাঁধা এ মন,
সে যে বড়ই মজার বাঁধন(২)
বাহিরে আলগা হলে,
ভিতরে জড়ায়-
তারে একবার মন দিলে হায় রে(২)
আর কি ফেরানো যায় !
রাধে মনটা রেখে এলি
বল কোন মথুরায়?(২)

রাধে প্রেম কি কাঁচের চুড়ি ?
রাধে প্রেমতো ঠুনকো নয়,
যদি আঘাত লাগে-
ভাঙবার নেইকো ভয়(২)
নাইবা রইল কাছে কাছে,
তোরই বধু তোরই আছে(২)
কালা যে লুকিয়ে আছে,
নয়ন তারায়
তারে একবার মন দিলে হায় রে –
তারে একবার মন দিলে হায় রে –
আর কি ফেরানো যায়!
রাধে মনটা রেখে এলি
বল কোন মথুরায়?(২)
রাধে..রাধে..

ভক্তিমূলক গান

আমারে fraud করে প্রাণকৃষ্ণ কোথায় গেলি

(শ্রীকৃষ্ণ বৃন্দাবন ছেড়ে মথুরায় গিয়ে রাজা তো হয়ে গেলেন।এদিকে বিরহ দশায় পড়ে আছেন শ্রীমতি রাধা রাণী। রাধা রানীর এই অবস্হা দেখে তার সখির কাছে জানলেন যে তিনি আবার কবে বৃন্দাবনে ফিরে আসবেন।তো দেখা করে ফিরে এসে দেখে;এ কি আশ্চর্য! শ্রীরাধিকা কুঞ্জে বসে অনর্গল ইংরেজি বলছে।ইংরেজিতে বিলাপ করছে।বিলাপ করে শ্রীকৃষ্ণের উদ্দ্যেশে বলছে)
I am for you
very sorry
আমার golden body
হল কালী-
আমারে fraud করে,
প্রাণকৃষ্ণ কোথায় গেলি(২)
আমারে fraud করে
I am for you
very sorry(2)
আমার Golden body
হল কালী(2)
আমারে fraud করে।
My dear dearest,
মধুপুরে গেলে কেষ্ট(2)
বলো এক্ষণ how to rest(2)
শোন dear বনমালী।
আমারে fraud করে
প্রাণকৃষ্ণ কোথায় গেলি
আমারে fraud করে।
(আমরা)Poor creature
Milky girl(গোয়ালিনী)(2)
তাদের breast-এ মারলি শেল(2)
Nonsense তোমার নাইকো আক্কেল(2)
Breach of contract করে গেলি।
আমারে fraud করে
প্রাণকৃষ্ণ কোথায় গেলি
আমারে fraud করে।
লম্পট শঠের fortune খুলল,
ঐ মথুরাতে king হল,
uncle কংসের প্রাণ নাশিল(2)
কুব্জা রাণী পেলে ডালি।
আমারে fraud করে
প্রাণকৃষ্ণ কোথায় গেলি
আমারে fraud করে।
শ্রীনন্দের boy young lad,
হেরি crooked mind hard(2)
কহে RC the Bird
কহে রুপচাঁদ পক্ষী
(বলি Half English half Bengali)
আমারে fraud করে
প্রাণকৃষ্ণ কোথায় গেলি
আমারে fraud করে
I am for you
very sorry(2)
আমার golden body
হল কালী
আমারে fraud করে(3)

ছায়াছবি

জীবনের নাম যদি রাখা হয় ভুল

জীবনের নাম যদি রাখা হয় ভুল।।
স্মৃতির নাম তবে বেদনার ফুল
ভুল সবই ভুল।।
জীবনের নাম যদি রাখা হয় ভুল।।
স্মৃতির নাম তবে বেদনার ফুল
ভুল সবই ভুল।।
যা কিছু পেয়েছি আমি,
তা আমার নয়।।
চিঠি যেন এসে গেছে,
ভুল ঠিকানায়
খুঁজে পাওয়া যাবে না তো
হারালো যে কূল
ভুল সবই ভুল
জীবনের নাম যদি রাখা হয় ভুল
স্মৃতির নাম তবে বেদনার ফুল
ভুল সবই ভুল।।
পাবে না তো খুঁজে কেউ
আমার খবর
মনের অনেক নিচে
দিয়েছি কবর
যদি কেউ আসে তবে
বোলো আমি নেই।।
চোখে জল আসবে
মনে পড়লেই
ফুটেছে আমার বুকে
ব্যথার বকুল
ভুল সবই ভুল
জীবনের নাম যদি রাখা হয় ভুল।।
স্মৃতির নাম তবে বেদনার ফুল
ভুল সবই ভুল।।

ভক্তিমূলক গান

জীবন পদ্মে স্পন্দিত হোক

জীবন পদ্মে স্পন্দিত হোক
রামকৃষ্ণ সারদা নাম
অরুণকান্ত রুপভরা
অশ্র সরস করুক প্রাণ
ও ও ও ও

ক্লান্ত তৃষিত দূরের কন্ঠ
তৃপ্ত হোক কর আশিস
অন্ধকারের ভীতি হরণ
জাগাও তোমার মোহন ঠাম
ও ও ও ও
জীবন পদ্মে স্পন্দিত হোক
রামকৃষ্ণ সারদা নাম
অরুণকান্ত রুপভরা
অশ্র সরস করুক প্রাণ

মর্ত্য মাটিতে স্বর্গ আসুক
তোমার কৃপায় যুগাবতার
কুন্ঠিত হেরি লুন্ঠিত হিয়া
গাও হে দুগ্ধ শোকে প্রাণ
আ আ আ আ
জীবন পদ্মে স্পন্দিত হোক
রামকৃষ্ণ সারদা নাম
অরুণকান্ত রুপভরা
অশ্র সরস করুক প্রাণ
জীবন পদ্মে স্পন্দিত হোক
রামকৃষ্ণ সারদা নাম।

ছায়াছবি

ও বন্ধু তুমি শুনতে কি পাও

গারে সানি সা রে রে
গারে সানি পা
নিসা নিসা রে পা গা রে
গারে সানি পানি সারে
পাগা রেসা নিসা রেগা
সারে সারে রেগা রেগা
গামা গামা পানি সারে
ও বন্ধু তুমি শুনতে কি পাও(২)
এ গান আমার ও এ গান আমার(২)
ছুঁয়ে যাবে এ সুর হৃদয়ে তোমার(২)
এ গান আমার ও এ গান আমার(২)
ও বন্ধু তুমি শুনতে কি পাও(২)
এ গান আমার ও এ গান আমার(২)
জানি না কোথায় আছো
তুমি কত দূরে
আমার এ মনের কথা,
যায় ভেসে সুরে ও ও (২)
যদি পার সামনে এসো,
কাছে এসে ভালবাসো(২)
বুঝ নাকি ভালবাসা করে হাহাকার
ছুঁয়ে যাবে এ সুর হৃদয়ে তোমার
এ গান আমার ও এ গান আমার(২)
ও বন্ধু তুমি শুনতে কি পাও(২)
এ গান আমার ও এ গান আমার(২)
কেন এই লুকোচুরি
কি কারণে জানি না
কাছে যেতে চাই তবু কেন,
যেতে পারি না ও ও(২)
বলনাকো কার ভুলেতে,
দেখা তুমি চাও না দিতে(২)
বলো কবে দু’টি মন হবে একাকার
ছুঁয়ে যাবে এ সুর হৃদয়ে তোমার
এ গান আমার ও এ গান আমার(২)
ও বন্ধু তুমি শুনতে কি পাও(২)
এ গান আমার ও এ গান আমার(২)
ছুঁয়ে যাবে এই সুর হৃদয়ে তোমার(২)
এ গান আমার ও এ গান আমার(২)
ও বন্ধু তুমি শুনতে কি পাও(২)
এ গান আমার ও এ গান আমার(২)

ভক্তিমূলক গান

এই যে আকাশ আর এই যে মাটি

এই যে আকাশ আর এই যে মাটি
সবি যে তোমার দেওয়া দান
তোমারই খেয়ালে গড়া মানুষ যে তার
গায়গো তোমারি জয়গান
প্রণাম তোমায় হে তারেকেশ্বর
তোমার আসন জানি সবার উপর
বিপদে আপদে তাই দলে দলে
তোমার চরণ ছুঁতে মানুষ চলে
তোমার স্মরণ নিলে দুখীর দুখ
হাসিমুখে জানি তুমি করে দাও ত্রাণ
প্রণাম তোমায় হে তারেকেশ্বর
তোমার আসন জানি সবার উপর
শপথের জল নিয়ে চলেছি যে তাই,
তোমার মাথায়টাতে ছড়া’তে যে চাই(২)
আসুক যতই কেন প্রলয় বাঁধা
মেটাও মনের আশা ওগো ভগবান
প্রণাম তোমায় হে তারেকেশ্বর
তোমার আসন জানি সবার উপর
তুমি শেখালেনা পিতা স্বর্গ
পিতার কারনে নিয়ে চলি অর্ঘ্য
পরম পিতার কাছে এ’তো নিবেদন
বিফল করোনা ওগো করুনা নিদান
প্রণাম তোমায় হে তারেকশ্বর
তোমার আসন জানি সবার উপর
বাঁচিয়েছ কত তুমি অকাল মরণ,
আমার মানত শুধু একটি জীবন(২)
কত পাপী কত তাপী হল উদ্ধার
বাঁচাও একটি ভালো মানুষের প্রাণ
এই যে আকাশ আর এই যে মাটি
সবি যে তোমার দেওয়া দান
তোমারই খেয়ালে গড়া মানুষ যে তার
গায়গো তোমারি জয়গান
প্রণাম তোমায় হে তারেকশ্বর,
তোমার আসন জানি সবার উপর(২)
প্রণাম তোমায় হে তারেকশ্বর
তোমার আমার হে তারেকশ্বর
প্রণাম তোমায় হে তারেকশ্বর(২)

ভক্তিমূলক গান

মা হওয়া কি মুখের কথা

মা হওয়া কি মুখের কথা(৪)
(শুধু)প্রসব করলে হয়না মাতা(২)
(যদি) না বুঝে সন্তানের ব্যথা(২)
মা হওয়া কি মুখের কথা(২)
দশমাস দশদিন,
যাতনা পেয়েছেন মাতা(২)
এখন ক্ষুধার বেলা শুধালেনা
এল পুত্র গেল কোথা(২)
মা হওয়া কি মুখের কথা(৩)
সন্তানে কু-কর্ম করে,
বলে সারে পিতা-মাতা(২)
দেখ কাল প্রচন্ড করে দন্ড
তাতে তোমার হয়না ব্যথা(মা)(২)
মা হওয়া কি মুখের কথা(৩)
দ্বিজ রামপ্রসাদ বলে মা-(২)
এ চরিত্র শিখলে কোথা
যদি ধর আপন পিতৃধারা
নাম ধরোনা জগন্মাতা(২)
মা হওয়া কি মুখের কথা(২)

বসন্তবাহার-একতাল

ছায়াছবি

সব লাল পাথরেতে চুন্নী হতে পারে না

সব লাল পাথরতো
চুন্নী হতে পারেনা
সব প্রেম মিলনে
মালা পেতে পারেনা
পাশাপাশি দুটি ফুল
ফোঁটে যে বাগিচায়
একজন ঠাঁই পায়
দেবতার দুটি পায়
সমাধীর বেদীটায়
ঝরে যায় একজন
সব ফুল দেবালয়
পারেনাতো যেতে হায়।
কেউবা হাসে
সারাটি জীবন
অশ্রু ঝরায়
কারো বা নয়ন
কেউবা দু’হাতে
কেবলি নিতে চায়
কেউ কিছু নিতে নয়
শুধু যে দিতে চায়
সুখীতো সকলেই
হতে চায় দুনিয়ায়
সুখী কেউ হয় কেউ
দু:খেই শুধু রয়ে যায়।
কারো বা আশা
হয়গো পূরণ
হয়না সফল
কারো বা স্বপন
ভিক্ষারী মাটিতে
ফেলে রতণ
পারেনা দিতে তা
কখনো মহাজন
প্রদীপের শিখা কারো
ঘর আলো করে যায়
কারো ঘর প্রদীপের
শিখাতেই পুড়ে যায়।
ভাগ্যলিপী
লেখে একজন
সবাই মানি
তারি লিখন
চাওয়ার আগে
কেউ সবি পায়
কেউবা আশা দীপ
পেয়েও হারায়
ভালোবাসা না পেলেও
ভালোবেসে যাওয়া যায়
এরি স্মৃতি রয়ে যায়
পৃথিবীর কবিতায়।।

ছায়াছবি

সঙ্গীতে আজ আমরা দু’জন

উ আ আ আ আ আ
আ আ আ আ

সংগীতে আজ আমরা দু’জন
এক হয়ে যে রই
তুমি বাঁশি আমি বীণা হয়ে
সুরে সুরে কথা কই।।
আ আ আ আ আ

গানই আমার প্রাণ যে গো তাই
গানকে ভালোবাসি
মনের খেয়াল পাল উড়িয়ে
গানের স্রোতে ভাসি
কূল না পেলাম অকূল গাঙে
অনেক সুখী হই
তুমি বাঁশি আমি বীণা হয়ে
সুরে সুরে কথা কই।।
আ আ ও ও ও

আকাশ বলে আলো দিলাম
ফুলেরা মুখ মালা
অনেক দিনের অনেক আশা
পূর্ণ যে আজ হল-
স্বপ্ন যখন দেখছি জেগে
চোখে কেনগো ওই
তুমি বাঁশি আমি বীনা হয়ে
সুরে সুরে কথা কই।।
আ আ আ আ আ আ

গান যে আমার গান ছিলনা
তুমি আসার আগে
আমায় পাওয়ার পরে এ গান
গান হল কত রাগে
বল এবার আমি কি তোমার
মনের মত নই
তুমি বাঁশি আমি বীনা হয়ে
সুরে সুরে কথা কই।।

ছায়াছবি

ভুলিনী মা দূরে থেকে

ভুলিনী মা দূরে থেকে
তোমায় ডেকেছি
বহুদিনের পরে তোমার
কাছে এসেছি
আজকে নেচে গেয়ে
মন ভোলাব যে তোমার
ও ভুলিনী মা
জন্ম থেকে জেনেছি গো
তোমাকে মা বলে,
তবু দেখ ভেসে গেলাম
আমি গাঙের জলে
শুধু তুমি ছাড়া
আরতো কেউ নেই যে আমার
ও ও ভুলিনী মা দূরে থেকে
তোমায় দেখেছি
বহুদিনের পরে তোমার
কাছে এসেছি
আজকে নেচে গেয়ে
মন ভোলাব যে তোমার
ও ভুলিনী মা
কোথায় ছিলাম,কেমন ছিলাম
সবি জান তুমি
যখন যেথায় রেখেছ মা
আছি তেমনি আমি
হাসিমুখে মেনে নিয়েছি
তোমার বিচার
ও ও ভুলিনী মা দূরে থেকে
তোমায় ডেকেছি
বহু দিনের পরে তোমার
কাছে এসেছি
আজকে নেচে গেয়ে
মন ভোলাব যে তোমার
ও ও ভুলিনী মা
এক পলকে কত কিছু
হতে পারে এখানে
যা হবে তা ভাল হবে
তুমি আছ যেখানে
মন্দ-ভাল সবেতে মা
তোমার জয় জয়কার
ও ভুলিনী মা দূরে থেকে
তোমায় ডেকেছি;
বহুদিনের পরে তোমার
কাছে এসেছি;
আজকে নেচে গেয়ে
মন ভোলাব যে তোমার,
ও ও ভুলিনী মা(২)

ভক্তিমূলক গান

জয় রাধে রাধে কৃষ্ণ কৃষ্ণ গোবিন্দ গোবিন্দ বল রে

জয় রাধে রাধে কৃষ্ণ কৃষ্ণ
গোবিন্দ গোবিন্দ বল রে(৩)
(রাধে)গোবিন্দ গোবিন্দ
গোবিন্দ গোবিন্দ(২)
গোবিন্দ ব’লে সদা ডাকরে।
জয় রাধে রাধে কৃষ্ণ কৃষ্ণ
গোবিন্দ গোবিন্দ বল রে

ছাড় রে মন কপট চাতুরী
বদনে বল হরি হরি(২)
(হরি)নাম পরম ব্রহ্ম
জীবের মূল ধর্ম(২)
অধর্ম কুকর্ম ছাড়রে।
জয় রাধে রাধে কৃষ্ণ কৃষ্ণ
গোবিন্দ গোবিন্দ বল রে

ছাড়রে মন ভবের আশা
অজপা নামে কর রে নেশা(২)
(রাধে)গোবিন্দ নামটি
বদনে লইয়ে(২)
নয়ন-নীরে সদা ভাসরে।
জয় রাধে রাধে কৃষ্ণ কৃষ্ণ
গোবিন্দ গোবিন্দ বল রে(৩)
(রাধে)গোবিন্দ গোবিন্দ
গোবিন্দ গোবিন্দ(২)
গোবিন্দ ব’লে সদা ডাকরে।
জয় রাধে রাধে কৃষ্ণ কৃষ্ণ
গোবিন্দ গোবিন্দ বল রে(৬)

আধুনিক

এবার পূজোয় চাই আমায় বেনারসি

এবার পূজোয় চাই আমায়
বেনারসি শাড়িরে-
নইলে যে তোর সঙ্গ ছেড়ে
দেব গলায় দড়ি রে
নাকছাবি আর ঝুমকো লতা
এবার আমায় চাইরে
নইলে যে তোর সঙ্গ ছেড়ে
দেবো গলায় দড়িরে।

গেল বছর পূজার আগে
বাবার বাড়ি দিয়ে এলি,
পূজো যখন হয়ে গেল
অমনি আমায় নিতে গেলি।

বাপের বাড়ি এবার যাবোনা,
গেলে ফিরে আর আসবোনা
একা একা থাকার তখন
বুঝবি কত জ্বালারে।

পাবে কোথায় এত টাকা
কার কাছে পাতবি হাত,
মিথ্যা কথা সাজিয়ে বলে
করিছ রে তুই বাজিমাৎ।

মিষ্টি কথা আর ভুলবো না
কোন ছুতা যে তোর শুনবো না
ধোঁকা দিলে পাবিরে তুই
ধোঁকা দেওয়ার খেলারে।

ভালো মানুষ পেয়ে আমায়
সারা জীবন ঠকিয়ে যাবি
এমন যদি ভেবে থাকিছ,
তুই হারাবি সুখের চাবি।

ভবী এবার জানিস্ ভুলবেনা
জ্বালা কি যে তোর চলবেনা
কত ধানে হয় কত চাল,
এবার যেটা দেখবি রে।

নাকছাবি আর ঝুমকো লতা
এবার আমায় চাইরে
নইলে যে তোর সঙ্গ ছেড়ে
দেবো গলায় দড়িরে।।

আধুনিক

এবারের পূজোতে লাল শাড়ি নেবো

এবারের পূজোতে লাল শাড়ি নেব,
বাহারি খোঁপাতে লাল ফুল দেব।

না দিলে লাল শাড়ি,
যাব বাপের বাড়ি
ভেবনা কখনই ফিরে আসবো
এবারের পূজোতে লাল শাড়ি ননেব।

সপ্তমীতে বালু-চরি অষ্টমীতে তসর,
নবমীতে তাঁতের শাড়ি,পরবো যে এ বছর
না দিলে সোনার চুড়ি,
আর করবোনা সংসারি
কি করে সমাজে মুখ দেখাবো।

দশমীতে দশভুজা
ভাসান যাবার পরে,
কথা দাও বেড়াতে যাবে
পাহাড় নয় সাগরে।

না দিলে কথা,
আর থাকবোনা এই ঘরে
কি করে তোমাকে সাথী মানবো।

না দিলে লাল শাড়ি,
যাব বাপের বাড়ি
ভেবনা কখনই ফিরে আসবো
এবারের পূজোতে লাল শাড়ি নেব।।

ছায়াছবি

আমার এই চোখ দিয়ে পৃথিবীর সব আলো

আমার এই চোখ দিয়ে
পৃথিবীর সব আলো
আমি তোমায় দেখাবো
বলনা কুহু সুরে
কোন পাখি ডাকে দূরে।।
ডালে ডালে কোয়েলিয়া
কোয়েলের সন্ধানে
গান গায় প্রেমের সুরে
বলনা কুহু সুরে
কোন পাখি ডাকে দূরে?
বলতো সবার চেয়ে সুন্দর কি?
সে তো তুমি,সে তো তুমি
উ বলতো কাকে বেশি ভালবাসে মন?
জানিনা আমি,জানিনা আমি ও ।।
ঝিরিঝিরি বাতাসেতে
আজ মন কি আবেশে?
যেতে চায় হারিয়ে দূরে
বলনা কুহু সুরে
কোন পাখি ডাকে দূরে?
বলনা কি দেখে
তুমি বাসলে ভালো
(ওগো)তোমার হাসি,তোমার হাসি
ও ও উ উ মরে যাই মরমেতে
ও কথা শুনে
পেয়েছে জীবন চাওয়ার বেশি উ উ ।।
এক পা,দু’পা করে,
কখনো মনের ঘরে
এলে তুমি হৃদয় জুড়ে
আ আ বলনা কুহু সুরে
কোন পাখি ডাকে দূরে?
আমার এই চোখ দিয়ে
পৃথিবীর সব আলো
আমি তোমায় দেখাবো
বলনা কুহু সুরে
কোন পাখি ডাকে দূরে?

ভক্তিমূলক গান

জাগো চন্ডিকা মহাকালী

(মা মা মা)
নিপীড়িতা পৃথিবী ডাকে
জাগো চন্ডিকা মহাকালী(২)
নিপীড়িতা পৃথিবী ডাকে।
মৃতের শ্মশানে নাচো
মৃত্যুঞ্জয়ী মহাশক্তি(২)
দনুজ-দলনী করালি
জাগো মহাকালী
মহাকালী মহাকালী মহাকালী
নিপীড়িতা পৃথিবী ডাকে।

প্রাণহীন শবে শিব-শক্তি জাগাও
নারায়ণের যোগ-নিদ্রা ভাঙাও(২)
অগ্নিশিখায় দশদিক রাঙাও
বরাভয়দামিনী নৃমুন্ডমালি
নিপীড়িতা পৃথিবী ডাকে।

শ্রী চন্ডিতে তোরই শ্রীমুখের বাণী
কলিতে আবির্ভাব হ’বে তোর ভবানী(২)
এসেছে যে কলি,
কালীকা এলি কই,
শুম্ভ নিশুম্ভ জন্মেছে পুন: ঐ(২)
অভয় বানী তব মাভৈ: মাভৈ:(২)
শুনিব কবে মা গো খরতর তালি(২)
নিপীড়িতা পৃথিবী ডাকে
জাগো চন্ডিকা মহাকালী
নিপীড়িতা পৃথিবী ডাকে।