বিবিধ

মাশরাফি

সময়ের পোস্টারে লিখে যাও তুমি
বাংলাদেশের নাম।
হৃদয় গভীর থেকে
জানাই তোমায় হাজারো সালাম।
তুমি জিতো
তুমি জিতাও
তুমি বোঝোও বিজয়ের ভাষা।
“মাশরাফি মাশরাফি তুমি কোটি প্রাণের আশা।
মাশরাফি মাশরাফি তুমি লাল-সবুজের ভালবাসা”

টেকনাফ থেকে তেতুলিয়ায় শুনা যায় তোমার গর্জন
বাংলা মায়ের জন্য
তুমি দিয়েছো অনেক বির্সাজন||
তুমি প্রিয়
তুমি সেরা
তুমি আগামীর প্রত্যাশা।
“মাশরাফি মাশরাফি তুমি কোটি প্রাণের আশা।
মাশরাফি মাশরাফি
তুমি লাল-সবুজের ভালবাসা”||

রক্তের শেষ বিন্দু দিয়ে করে যাও তুমি লড়াই।
আধাঁরের রং চিনো না তুমি,
চিনেছো শুধু আলোটাই||

তুমি প্রিয়
তুমি সেরা
তুমি আগামীর প্রত্যাশা।
“মাশরাফি মাশরাফি তুমি কোটি প্রাণের আশা।
মাশরাফি মাশরাফি তুমি লাল-সবুজের ভালবাসা”

ছায়াছবি

আমি তোকে ছুঁতে চাই

আমি তোকে ছুঁতে চাই
হাতে কিংবা অজুহাতে
আমি তোকে পেতে চাই
অভিমানের ভাষাতে
আমি তোকে পেতে চাই
ভর দুপুর আর জোসনা রাতে
আমি তোকে পেতে চাই
ঘৃণা আর আঘাতে …আঘাতে

আমি তোকে পেতে চাই
বই খাতার সব পাতাতে
আমি তোকে পেতে চাই
জীবনটাকে সাজাতে
আমি তোকে পেতে চাই
আমি তোকে পেতে চাই

ভর দুপুর আর জোসনা রাতে
আমি তোকে পেতে চাই
ঘৃণা আর আঘাতে …আঘাতে

আমি তোকে পেতে চাই
আমার মনের শুন্যতায়
আমি তোকে পেতে চাই
পূর্ণতায় অ-পূর্নতায়

আমি তোকে পেতে চাই
ভর দুপুর আর জোসনা রাতে
আমি তোকে পেতে চাই
ঘৃণা আর আঘাতে …আঘাতে

আমি তোকে পেতে চাই
ভর দুপুর আর জোসনা রাতে
আমি তোকে পেতে চাই
ঘৃণা আর আঘাতে …আঘাতে

আমি তোকে পেতে চাই
ঘৃণা আর আঘাতে …আঘাতে

ছায়াছবি

না জানি কোন অপরাধে

নাজানি কোন অপরাধে, দিলা এমন জীবন
আমারে পুড়াইতে তোমার, এতো আয়োজন
আমারে ডুবাইতে তোমার, এতো আয়োজন

ওঅঅঅ আমারে ডুবাইতে তোমার এতো আয়োজন

সুখে থাকার স্বপ্ন দিলা, সুখ তো দিলা না
কতো সুখে আছি বেঁচে, খবর নিলা না বিধি
খবর নিলা না।

আমি ছাড়া কেউ নাই আমার, দুঃখের পরিজন
আমারে পুড়াইতে তোমার, এতো আয়োজন
আমারে ডুবাইতে তোমার, এতো আয়োজন 

ওঅঅঅ আমারে ডুবাইতে তোমার এতো আয়োজন

ছায়াছবি

অনেক কথার ভিড়ে

অনেক কথার ভিড়ে
অনেক কোলাহলে
যে কথাটি বুক পাজরে নীরব ছিল খুব
সেই কথাটি ভালোবাসার মমতারই সুর

সহস্র রাত আয়না ভরে
তোমার জন্য সব স্বপ্ন করে
ভালোবাসার মেঘ মল্লারে বৃষ্টিরা উৎসুক
সেই কথাটি ভালোবাসা মমতা নিশ্চুপ

চোখের কোনায় দুঃখ সুখের
তোমার জন্য সব অনুভবে ।।
ভালোবাসার সরলতায় রহস্য খোঁজো
সে কথাটি ভালোবাসার মমতা নিশ্চুপ

অনেক কথার ভিড়ে
অনেক কোলাহলে
যে কথাটি বুক পাজরে নীরব ছিল খুব
সেই কথাটি ভালোবাসার মমতা নিশ্চুপ

বিবিধ

মাশরাফি ফিরে এসো

বাংলার বাঘ তুমি বাংলার অহংকার
তোমাতে গর্জন তোমাতেই হুংকার ।।
ভালোবাসি তোমাক্‌, ভালোবাসি দেশ
মাশরাফি মর্তুজা তুমি প্রিয় ম্যাশ ।।

জয় দিয়ে মাঠ ছেড়েছো পূর্ণ করে আশা
মন থেকে শ্রদ্ধা নিও, নিও ভালোবাসা ।।
ভালোবাসি তোমাক্‌, ভালোবাসি দেশ
মাশরাফি মর্তুজা তুমি প্রিয় ম্যাশ।।

স্বপ্ন দেখি বিশ্বকাপ তোমারি হাতে
সারা বাংলা নাচে তোমারি সাথে ।।
ফিরে এসো ফিরে এসো বলো না কো শেষ
মাশরাফি মর্তুজা তুমি প্রিয় ম্যাশ…।’

‘বাংলার বাঘ তুমি বাংলার অহংকার
তোমাতে গর্জন তোমাতেই হুংকার ।।

ভালোবাসি তোমাকে, ভালোবাসি দেশ
মাশরাফি মর্তুজা তুমি প্রিয় ম্যাশ।।।

আধুনিক

মা

আমি আল্লাহ্‌ রাসুল নবীর পরে করি যার প্রার্থনা
তার পায়েরই নিচে আমার বেহেশতের ঠিকানা
সে যে আমার মা জননী একটি প্রিয় নাম
কেমন করে শোধ করি মা তোর দুধেরই দাম
দিন দুনিয়ার কিছুই দিয়ে ঋণ শোধ হবে না
দোহায় মাগো আমার আগে উড়াল মারিস না
তোর চেয়ে মা আপন কোথাও নাইরে কেহ নাই
সারা জনম তোর কোলে মা পাই জেনোরে ঠাই
আসবো আমি ফিরে ফিরে যতোই দূরে যাই
মুখখানি তোর দেখলে মাগো শান্তি খুঁজে পাই
তুই যে বড় আদোরিনি তোর তুলনা নাই
তুই পাশে না থাকলে মাগো আমি কষ্ট পাই
চিরকালি নিয়ে শুধু তুই যে হাসি মুখ
নিজের স্বার্থটাকে ভুলে দেখলি আমার সুখ

ছায়াছবি

বধু তোমার আমার এই যে পিরীতি

বধু তোমার আমার এই যে পিরীতি
বোঝাবো বলো কি দিয়া ।।
মোরা এক তনু হতে জনম নিয়াছি ।।
দোহে দুই রূপ নিয়া
বোঝাবো বলো কি দিয়া
আমি বোঝাবো বলো কি দিয়া

তোমার পরাণে পরাণ রাখিয়া,
তোমার আঁখিতে আঁখি ।।
নিজেরে ডাকিতে বারে বারে বধু, ।।
আমি তোমারেই শুধু ডাকি
আমি আপন মরমে চোখ মেলে দেখি
তুমি আমার হিয়া
বধু তুমি আমার হিয়া

ছায়াছবি

আমার সকল চাওয়া তোমারই কাছে

আমার সকল চাওয়া তোমারই কাছে
তোমারই কাছে আমি চাই

নয়নে নয়নে তুমি,দেহ মন প্রানে তুমি
তুমি ছাড়া কিছু নাই
আমার সকল চাওয়া তোমারই কাছে
তোমারই কাছে আমি চাই

বরষা না হলে ফুল ফোটে না যেমন
তেমনি তোমাতে ছাড়া বৃথা এ জীবন
অন্তরে অন্তর তুমি অংগের বাসর তুমি ।।
তোমারই জরায়ে রাখি তাই

নয়নে নয়নে তুমি,দেহ মন প্রানে তুমি
তুমি ছাড়া কিছু নাই
আমার সকল চাওয়া তোমারই কাছে
তোমারই কাছে আমি চাই

ভালোবেসে পোড়া বুক দাও ভরে দাও
তোমারই বাসনা দিয়ে আমাকে সাজাও
সুখেরও কাজল তুমি, দুখে আখি জল তুমি
নিজেকে তোমারই মাঝে পাই

নয়নে নয়নে তুমি,দেহ মন প্রানে তুমি
তুমি ছাড়া কিছু নাই
আমার সকল চাওয়া তোমারই কাছে
তোমারই কাছে আমি চাই

ছায়াছবি

আমার থাকতে পরান

আমার থাকতে পরান
আর কি দেখা
হবে রে তার সনে
সে রূপ কি আর
দেখবো না নয়নে।।

স্রোতে ভাসা শেওলা যেমন
কপাল দোষে হলাম তেমন রে ।।
আমার সুখের বসত
ভাঙলো কী কারণে।
সে রূপ কি আর
দেখবো না নয়নে।।
আমার থাকতে পরান
আর কি দেখা
হবে রে তার সনে !

ছিল আমার সাধের কুঞ্জবন
কপোত কপোতী হয়ে খেলিতাম দুজন ।।
সবই পুড়ে হলো রে ছাই
সেই সুখের আর আশা তো নাই রে ।।
এখন মরন যেন হয় রে তার চরণে।
মরন যেন হয় রে তার চরণে।
আমার থাকতে পরান
আর কি দেখা
হবে রে তার সনে !
সে রূপ কি আর
দেখবো না নয়নে।।

আধুনিক

জান রে

জানরে জানরে
তুমিহীনা মন পুড়ে
ধোঁয়া ধোঁয়া রে
ছল ছল চোখে কোন জল নাই রে

লাবন্যে বন্য তুমি
সবুজ অরন্যে হরিনী
সৌন্দর্য্যের প্রতিমা তুমি
…………………

নীলিমায় নক্ষত্র তুমি
ভরা জোছনায় যামিনী
অপূর্ব সুন্দর তুমি
ভালোবেসেও পাইনি –
ছল ছল চোখে কোন
জল নাইরে
জানরে জানরে
তুমিহীনা মন পুড়ে
ধোঁয়া ধোঁয়া রে

আধুনিক

যাবি কত দূরে

যাবি কত দূরে আমাকে ছেড়ে
আমি আছি তোরই মনেরই ঘরে
তোকে ছাড়া এই আমি থাকতে কি পারি
বুকটা চিড়ে দেখ করে আহাজারি
তোকে ছাড়া থাকা যায় না রে
তোরই মত করে আমায় কেউ বোঝে না রে
চোখের কাছে চোখটা রেখে প্রেম খোঁজে না রে

থাকিস রে তুই যেখানে, মন ছুটে যায় সেখানে
তোকে ছাড়া জীবন, যায় না ভাবা এমন
মন আমার সুখ যে পায় না রে
তোরই মত করে আমায় কেউ বোঝে না রে
চোখের কাছে চোখটা রেখে প্রেম খোঁজে না রে

এই বুকেরই ভিতরে রাখি তরে আদরে
তুই যে আশার আলো, বাসি তোরে ভালো
মন যে আর কিছু চায় না রে
তোরই মত করে আমায় কেউ বোঝে না রে
চোখের কাছে চোখটা রেখে প্রেম খোঁজে না রে

আধুনিক

সবার বাংলাদেশ

তুমি আমার
ছায়া ঢাকা পাখি
ডানা গ্রাম
তুমি আমার
থানা সদর
ছোট্ট জেলা শহর
তুমি আমার
রাজধানী
প্রিয় স্বদেশ
তুমি আমার, তুমি তাহার, সবার বাংলাদেশ

দুঃখ এলে তুমি খোলো সকল সুখের ঝাপি
উষ্ণতা দাও যখন আমি ভীষন শীতে কাপি
তোমার কাছে সব ফিরে পাই হই যদি নিঃশেষ
তুমি আমার, তুমি তাহার, সবার বাংলাদেশ

তোমার কাছে জমা আছে অনেক ক্ষমতা
কাঁদাও হাসাও যা-ই করো তোমার মমতা
আমি মাথা পেতে নেই মেনে তোমারই নির্দেশ
তুমি আমার, তুমি তাহার ,সবার বাংলাদেশ

তোমায় নিয়ে যখনি কেউ ছিনিমিনি খেলে
তখন বুকের প্রতিবাদী পাখী বিদ্রোহী ডানা মেলে
উড়ে গিয়ে গুড়িয়ে দেয়, খেলোয়াড় আর খেলা
তোমার যে কোনো প্রয়োজনে তৈরী সারাবেলা