আধুনিক

কষ্ট বেচে খাই

কেও না জানুক মন তো জানে
মনের ও যে কষ্ট আছে
সেই বেদনা লুকিয়ে রাখি
হাজার ছলনায়

মানুষ বলে জীবন খাতায়
ভুলের হিসেব পাতায় পাতায়
দূরের থেকে ভাল সবই
কাছে গেলে নাই

যখন দেখি চাওয়া পাওয়া শূন্যতে মিলায়
তখন আমি এই শহরে কষ্ট বেচে খাই

ভালবাসার নাম দিয়েছি আমি কান্না
অনায়াসে বয়ে আনে চোখে কান্না
আমার কাছে ভালবাসা যেন অন্ধকার
ভালবাসা নকশি কাঁথা গোপন ও দ্বিধা

যখন দেখি চাওয়া পাওয়া শূন্যতে মিলায়
তখন আমি এই শহরে কষ্ট বেচে খাই

যাকে খুঁজে হারিয়ে গেলাম গভীর অরন্নে
যে পেছানো লতার মাঝে গেলাম জড়িয়ে
ডেকে যখন ডাক মিলেনা তখন ভাবে মন
হয়তো একটু পরক্ষনে আসবে প্রিয়জন

ছায়াছবি

আমার সারাদেহ খেয়ো গো মাটি

আমার সারাদেহ খেয়ো গো মাটি
এই চোখ দুটি মাটি খেয়ো না
আমি মরে গেলেও তারে দেখার সাধ
মিটবে না গো মিটবে না
তারে এক জনমে ভালোবেসে
ভরবে না মন ভরবে না

ওরে… ইচ্ছে করে বুকের ভিতর
লুকিয়ে রাখি তারে
যেন না পারে সে যেতে
আমায় কোনদিনও ছেড়ে
আমি এই জগতে তারে ছাড়া
থাকবো নারে থাকবো না
তারে এক জনমে ভালোবেসে
ভরবে না মন ভরবে না

ওরে… এই না ভুবন ছাড়তে হবে
দুইদিন আগে পরে
বিধি, একই সঙ্গে রেখো মোদের
একই মাটির ঘরে
আমি এই না ঘরে থাকতে একা
পারবো নারে পারবো না
তারে এক জনমে ভালোবেসে
ভরবে না মন ভরবে না

ছায়াছবি

সোনাই হায় হায়রে

কেহ লইলো আতর লোবান
কেহ লইলো জল
কেহ লইলো বরই পাতা
কেহ লইলো পরীরে
সোনাই হায় হায়রে
সোনাই হায় হায়রে ।।

ফুল কান্দে পাখি কান্দে
কান্দে গাঙের পাড়
কান্দিয়া কান্দিয়া সোনাই
হইলো জারে জার ।।

বাবায় দিলো কন্যারে কাঁধ
শ্বশুর দিলো মাটি
বৃষ্টি পড়ে টাপুর টুপুর
মাটি ছুঁয়ে খাঁটি
সোনাই হায় হায়রে
সোনাই হায় হায়রে ।

আধুনিক

ঘুড়ি তুমি কার আকাশে উড়ো

ময়লা টি-শার্ট
ছেঁড়া জুতো
কদিন আগে এই
ছিল মনেরই মতো
দিন বদলের
টানা-পোঁড়নে
সখের ঘুড়ি নাটাই সুঁতো
ঘুড়ি তুমি কার আকাশে উড়ো
তার আকাশ কি আমার চেয়ে বড়ো

তোমার নিকট অতীত
আমার এক যুগ আগের শীত
পৃথিবী তোমার অনুকূলে থাকে
আমার বিপরীত
তোমার ছোট্ট চাওয়া
আমার বৃষ্টিতে ভিজে যাওয়া
তারপর একা ঘরে মন
জড়োসড়ো

তোমার রোদেলা শহর
আমার রংচটা রং-এর ঘর
জানালা তোমার অভিমুখে খোলা
দেয়াল নড়বড়
তোমার একটু ছোঁয়া
আমার স্বপ্নকে খুঁজে পাওয়া
তারপর ঘুমভাঙ্গা চোখ
জড়োসড়ো

—————-

ব্যান্ড

শ্রাবনের মেঘগুলি

শ্রাবনের মেঘগুলি জড়ো হলো আকাশে
অঝরে নামবে বুঝি শ্রাবনেই ঝরায়ে

আজ কেন মন উদাসী হয়ে
দূর অজানায় চায় হারাতে

কবিতার বই সবে খুলেছি
হিমেল হাওয়ায় মন ভিজেছে
জানালার পাশে চাঁপা মাধবী
বাগান বিলাসী হেনা দুলেছে

আজ কেন মন উদাসী হয়ে
দূর অজানায় চায় হারাতে

মেঘেদের যুদ্ধ শুনেছি
সিক্ত আকাশ কেঁদে চলেছে
থেমেছে হাঁসের জলকেলী
পথিকের পায়ে হাঁটা থেমেছে

আজ কেন মন উদাসী হয়ে
দূর অজানায় চায় হারাতে

শ্রাবনের মেঘগুলো জড়ো হলো আকাশে
অঝরে নামবে বুঝি শ্রাবনেই ঝরায়ে