ভাগ্যের ডাক্তার ভাগ্যটা দেখে বলে
ভাগ্য তোমার তোমার অতি চমৎকার
সুন্দরী বউ হবে ঘরে সুখ ররে
করবে অনেক কিছু আবিস্কার।।

সামনের ফাল্গুনে রবে তুমি মধুবনে
বাধা যত আছে সবই যাবে দূর হয়ে।

শনি কাল কেঁটে গিয়ে রবির উদয় হবে
চাওয়া পাওয়া সব যাবে মিলে।।

একদিন শুভক্ষণে জতিষীর কথা গুনে
এলো বধু সাথী হয়ে আমারই ঘরে।

দিন কাল কোথা দিয়ে চলে যেতো আনমনে
কাজ ফেলে ঘরে বসে বসে।।

আজ একি হলো আমার খালি চোখে দেখি আধার
আধা মাসও যায় না আমার বিয়ে শাড়ি হার।
এরচেয়ে চেয়ে ছিল ভাল সেই একা সংসার
ঘর ছেড়ে পথে করি চিৎকার।।