কবে তুমি আসবে ব’লে রইব না বসে
আমি চলব বাহিরে।

শুকনো ফুলের পাতাগুলি পড়তেছে খসে
আর সময় নাহি রে।

বাতাস দিল দোল্‌, দিল দোল্‌;

ও তুই ঘাটের বাঁধন খোল্‌, ও তুই খোল্‌।
মাঝ-নদীতে ভাসিয়ে দিয়ে তরী বাহি রে।।

আজ শুক্লা একাদশী, হেরো নিদ্রাহারা শশী

ওই স্বপ্নপারাবারের খেয়া একলা চালায় বসি।

তোর পথ জানা নাই, নাইবা জানা নাই
ও তোর নাই মানা নাই, মনের মানা নাই
সবার সাথে চলবি রাতে সামনে চাহি রে।