আয়রে আয় ঘুম আয়।
আমার বাপির চোখে নেমে আয়।।

(হায় রে এক দুখিনী মায়ের অশ্রু ভরে যায়।
নিস্প্রান পথের ধুলায়
দীর্ঘ্য নিশ্বাষ রেখে যায়, আয় রে ফিরে আয়।)

ঘুমপরীগো দেবো তোরে
মুক্তো হীরের গয়না গড়ে।
একটুখানি বসে যাবি দুষ্ট চোখের ছায়।।

(কেউ খুজে পায় কেউ বা না পায়।
কেউ বা আবার পেয়েও হারায়।
এই কী পৃথিবীর ইতিহাস
যার কথা কেউ লিখে রাখে না।)

তুই যে মানিক সোনা ওরে
আলোর কণা অন্ধকারে।
অনেক স্নেহের মনি আমার সকল সাধনা।।