কতটুকু ব্যথা পেলে
তোমারও কান্না পাবে
আমার ঘরের আগুন কখন
তোমারও ঘর পোড়াবে

কতটুকু ক্ষতি চাই
তোমাকে জাগাতে হলে
তোমাকেও পাশে পাবো
কতটুকু কেড়ে নিলে

মরেছে আমার ভাই
মরেছে আমার বোন
ন্যায্য কারণে ভেসেছে দু’চোখ
ভেঙেছে আমার মন

আমি তো আপনহারা
তাই এত চিৎকার
আমি তো নিয়েছি আমার দু’কাঁধে
মৃত পুত্রের ভার

তোমার দুধের সন্তান
আজও কথা কয় ঘুমো-ঘোরে
তুমি আছো তাকে ধরে
বুকেতে আড়াল করে

তবু কি বাঁচানো যাবে
অকাল মরণ খুঁজবে তাকে
কি ক্ষতিপূরণ গ্রহণ করবে
নালিশ জানাবে কাকে ?

সমবেদনার হাত
চাই না আমার কাঁধে
জানি না আসলে প্রতিকার আসে
কি রকম প্রতিবাদে

খোয়া গেছে আজ সব আমার
তাই কেটে গেছে ভয়
হারিয়ে বুঝেছি ঘুমিয়ে থাকার
সময় এটা তো নয়

আমি বেঁচে আছি আমি জেগে আছি
ঘুমোতে পারি না বলে
তোমার মনের কড়া নেড়ে চলি
তোমাকে জাগাবো বলে

তখন জাগবে বুঝি
তোমাকে কিছু না বলে
লুকালে তোমার বুকের মানিক
চির নিদ্রার কোলে।।