মন গিয়েছে মনের ঘর,
রাত্রি খোঁজে স্বয়ম্বর,
জলের বুকে চাঁদ ভেঙে যায় অনর্গল |

আয়না শহর পরবাস,
আঙ্গুল ফাঁকে স্মৃতির ঘাস,
অন্য আকাশ উড়াল নিল পাখির দল |

দেখো এই আঁচলে টুকরো ঝিনুক খামখেয়াল ;
এই পকেটে ফুলের শরীর অল্প লাল ;
শিরশিরিয়ে সুর বয়ে যায় আনমনে |

পথ নিয়েহে হঠাৎ বাঁক,
এই কুয়াশায় আঁকছে কাকে !
সেও কি আমার ভীষণ চেনা ছলাৎ-ছল |

ইছে গেল গুলমহলের চৌকাঠে,
আদর হাঁটে মন কেমনের পথ ঘাটে,
চেনা মেঘের বৃষ্টি এলো স্নানের কিনারায় |

সে মুখ ছিল নাগাল ভয়,
সেই বাতাসে ভেতর ঘরে,
নরম পালক বিছিয়ে যেত রঙ-রঙিন |

হয়তো আছি দিনের দিনের পথ চিনে,
হয়তো নেব দমকা হওয়ার গান গাওয়া,
দূরের পাখি বলছে নাকি নরম ঠিকানায় |

রাতের বাগান চুপ তাকায়,
জ্যোৎস্না গুঁড়ো জানতে চায়,
মায়ার খবর তৈরী হল সংগোপন