(পিলখানা হত্যাকান্ড স্বরণে)

কতটুকু অশ্রু গড়ালে হৃদয় জলে সিক্ত
কত প্রদীপ শিখা জ্বালালেই জীবন আলোয় উদ্দীপ্ত
কত ব্যথা বুকে চাপালেই তাকে বলি আমি ধৈর্য
নির্মমতা কতদূর হলে জাতি হবে নির্লজ্জ

আমি চিৎকার করে কাঁদিতে চাহিয়া
করিতে পারিনি চিৎকার।
বুকের ব্যথা বুকে চাপায়ে নিজেকে দিয়েছি ধিক্কার।।

আজও কানে বাজে সেই কথাগুলো
কে জানে যে হবে শেষ কথা।

নিয়তির ডাকে দিলি যে সাড়া
ফেলে গেলি শুধু নীরবতা
যার চলে যায় সেই বোঝে যে হায়
বিচ্ছেদে কি যন্ত্রণা।
অবুঝ শিশুর অবুঝ প্রশ্ন
কি দিয়ে দেব সান্ত্বনা

আমি চিৎকার করে কাঁদিতে চাহিয়া
করিতে পারিনি চিৎকার।
বুকের ব্যথা বুকে চাপায়ে নিজেকে দিয়েছি ধিক্কার।।

বিধাতা তোমারে ডাকি বারেবারে
কর তুমি মোরে মার্জনা।

দুঃখ সইতে দাও গো শক্তি
তোমারি সকাশে প্রার্থনা

চাহিনা সহিতে আমার মাটিতে
মজলুমেরই আর্তনাদ।

বিষাদ অনলে পুড়ে বারেবারে
লুণ্ঠিত হবে স্বপ্নসাধ

আমি চিৎকার করে কাঁদিতে চাহিয়া
করিতে পারিনি চিৎকার।
বুকের ব্যথা বুকে চাপায়ে নিজেকে দিয়েছি ধিক্কার।।