মানুষ ধরো মানুষ ভজ শোন বলিরে পাগল মন।
মানুষের ভিতরে মানুষ করিতেছে বিরাজন।

মানুষ কি আর এমনি বটে যার চরণে জগৎ লুটে
এই না পঞ্চভুতের ঘাটে খেলিতেছে নিরঞ্জন

চৌদ্দতালার উপরে দালান তার ভিতরে ফুলের বাগান।
লাইলী আর মজনু দেওয়ান সুখেই করেছে আসন।।

দুই ধারে দুই কঠরা হায়াৎ মউত মাঝখানে ভরা
সময় থাকতে খুঁজরে তোরা নিকটেতে কাল সময়

সোনার পুরী আন্ধার করে যেদিন পাখি যাবে উড়ে।
শূন্য খাঁচা থাকবে পড়ে কে করবে আর তার যতন।।

তালাশে খালাশ মেলে তালাশ করো রংমহলে
উঠিয়া হাবলঙের পুলে চেয়ে থাকো সর্বক্ষন

দেখিবে হাবলঙের পুলে দুই দিকেতে অগ্নি জ্বলে
ভেবে রশীদ উদ্দিন বলে চমকিছে স্বর্ণের মতন।।