যদিও রজনী পোহালো তবুও
দিবস কেন যে এলো না এলো না।
সজন মেঘের পরান ঝরিয়া
বরিষণ কেন হলো না হলো না।।

লোকে মরে কলঙ্কীনি নাম দিয়ে
বোঝে না তো কত জ্বালা মন নিয়ে।

বলে বলুক লোকে মানি না মানি না
কলঙ্ক আমার ভালো লাগে।

পিরিতি আগুনে জীবন সঁপিয়া
জ্বলে যাওয়া আজ হলো না হলো না।।

এমন পথ চলা ভালো লাগে না।
আমার অঙ্গ দোলে তরঙ্গে তরঙ্গে
কেউ না বাঁধে যদি পথ হারাবে নদী
ভালো লাগে না লাগে না।

ভালোবেসে মরি যদি সেও ভালো
ঘর বেঁধে যদি মরি আরো ভালো।

এসো এসো হে বধূ জ্বলিতে জ্বলিতে
মরণ আমার ভালো লাগে।

কপালের লিখা সিঁদুরে ঢাকিয়া
পথ চাওয়া আজ হলো না হলো না।।