তুমি বড় ভাগ্যবতী
না না তুমি বড় ভাগ্যবতী
হলো তোমার ঘরে দিবস এলো আমার ঘরে রাতি।।

পরের বনে ফুল ফোটাতে হলাম এসে মালি
ফুলের মালিক আমি তবু আঁচল আমার খালি।

হাসি খুশি এই জীবনে হলো তোমার সাথী
হলো তোমার ঘরে দিবস এলো আমার ঘরে রাতি।।

স্বামীর সোহাগ নিয়ে তুমি আছ বড় সুখে
সবই আছে ঘুম নেই তবু আমার দুটি চোখে।
দুঃখে যদি সুখ থাকে কিবা এমন ক্ষতি
হলো তোমার ঘরে দিবস এলো আমার ঘরে রাতি।।

ঘরের বাঁধন চিরতরে হলো তোমার মালা
মালার মাঝেও কাঁটা আছে ধরায় বুকে জ্বালা।
ধরতে তবু পেরেছ যে সুখের প্রজাপতি
আছে আমার ঘরে আধার জ্বলে তোমার ঘরে বাতি।।