ধর রে অধরচাঁদেরে অধরে অধর দিয়ে।
ক্ষীরোদ মৈথুনের ধারা ধর রে রসিক নাগরাযে
রসেতে অধর ধরা, থেক রে সচেতন হয়ে।।

অরসিকের ভোলে ভুলে, ডুবিস নে কূ-নদীর জলে
কারণবারির মধ্যস্থলে, ফুটেছে ফুল অচিন দলে
চাঁদ-চকোরা তাহে খেলে, প্রেমবাণে প্রকাশিয়ে।।

নিত্য ভেবে নিত্য থেক,
লীলার বাসে যেও না কোসেই দেশেতে মহাপ্রলয়,
মায়েতে পুত্র ধরে কায়ভেবে বুঝে দেখ মনুরায়,
সে দেশে তোর কাজ কি যেয়ে।।

পঞ্চবাণের ছিলে কেটে, প্রেম যাচো স্বরূপের হাটে
সিরাজ সাঁই বলে রে লালন, বৈদিক বাণে করিস নে রণ
বাণ হারায়ে পড়বি যখন রণ-খোলাতে হুবড়ি খেয়ে।।