মন আকাশে বৃষ্টি আসে
রৌদ্র মেঘের জুটি
আজ নতুন আলয়
আধার কালোর খুনসুটি
ঝরের বেসে এলো কেসে
কাজল সে চোখ দুটি
দিল কঠিন কথার,ভিষন্নতার ছুটি…
তারি সাথে খেলনাপাতে, অযথা হাসাহাসি
হাজার বারন আরো কারন,তবুও সে দারেই আসি

চলনা সুজন মিলে দুজন,নিলয় আকাশে বাসি
দেখুক লোকে এ দুচোখে,তোর অই দুচোখের হাসি
চলনা সুজন হারায় দুজন,বিনা দুষেই হোক ফাসি
দেখুক লোকে অবাক চোখে,কতটা ভালবাসি ।

চোরাবালির পিছু টানে,বুঝিনা এ ভাষার মানে
অসান্ত মণ, কি উজাতন খোদা জানে
ঘরের কাজে সকাল সাঝে,জিয়মিতির বাঝে বাঝে
কিসের ছায়া,একোন মায়া বুঝিনাজে…
ধীরে ধীরে চেনা ভীরে,অচেনা বারাবারি
অবুঝ এ মন কি জালাতন,এ কেমন আহাজারি

চলনা সুজন মিলে দুজন,আরেকটু ক্ষন ঘুরি
দেখুক লোকে এ দুচোখে, ছায়া যে শধু তরি
চলনা সুজন মিলে দুজন,অচেনা শহর গরি
সেই শহরে আপন করে, বৃষ্টি ফোটা হয়ে ঝরি

বাদাম খুশাই ভালবাসাই,নিয়ন আলয় কাছে আসাই
স্মৃতির খাতাই,চোখের পাতায় কিসের ফাকি
আপন কথার গোপন বেথায়,বন্দি খাচার বিষন্নতাই
কিসের জালা বিশের মালাই,বুঝনা কি
গোপন করে আপন তরে,বুকের পাজরে রাখি
ঘুমের বড়ি দিয়ে আড়ি,হৃদয় বাড়িতে থাকি

চলনা সুজন করি কুজন,সুখ পাখি হয়ে ডাকি
দেখুক লোকে কেমন তকে,প্রেমে জরিয়ে রাখি
চলনা সুজন পালায় দুজন,ওদের কে দিয়ে ফাকি
কোন সমান্তরাল পথের বাকে,বাসা বানিয়ে থাকি