তোমার বিয়ের রাতে, নেশায় মাতাল হবো না তোমার দুঃখে
আমি করবো না আর লং মার্চ তোমার বাড়ির অভিমুখে।
তোমার বিয়ের রাতে, নেশায় মাতাল হবো না তোমার দুঃখে
আমি করবো না আর লং মার্চ তোমার বাড়ির অভিমুখে।

আমি মুক্তাঙ্গনে তোমার কষ্টে দেবোনা দুঃখের ভাষণ
আমি প্রেসক্লাবে করবো না আর প্রতীকী অনশন।
আমি তোমার জন্য হাজার লোকের নিন্দা সইতে পারি
আমি তোমার জন্য পাহাড় সমান দুঃখে বইতে পারি।

আমি তোমার জন্য হাজার লোকের নিন্দা সইতে পারি
আমি তোমার জন্য পাহাড় সমান দুঃখে বইতে পারি।

তুমি আমার ভাঙ্গন ধরা নদীর বুকের চর
তুমি আমার মেঘলা রাতের ছোট্ট কুড়ে ঘর
সৃতির রশিতে রেখেছি বেঁধে অতীত সুখের কোণা
তুমি আমার তাঁতের চাদর আপন হাতে বোনা

তুমি আমার ভালবাসার কল্পনার নীল পরি
তোমার জন্য পাহাড় সমান দুঃখে বইতে পারি।
আমি তোমার জন্য হাজার লোকের নিন্দা সইতে পারি
আমি তোমার জন্য পাহাড় সমান দুঃখে বইতে পারি।

ছায়া শীতল বৃক্ষ তুমি চৈত্রের দ্বিপ্রহর,
তৃষ্ণায় তুমি সুপেয় জল রোদ্রের প্রখরে।
তুমি আমার প্রশমিত সুখ পরিস্ফুটিত দুঃখ
তোমার জন্য পাতা , তবু সংকোচিত বক্ষ।

আমি হাজার বার জন্মে যেন তোমার প্রেমেই পড়ি
আমি তোমার জন্য পাহাড় সমান দুঃখ বইতে পারি
আমি তোমার জন্য হাজার লোকের নিন্দা সইতে পারি
আমি তোমার জন্য পাহাড় সমান দুঃখে বইতে পারি।

তোমার বিয়ের রাতে, নেশায় মাতাল হবো না তোমার দুঃখে
আমি করবো না আর লং মার্চ তোমার বাড়ির অভিমুখে।
তোমার বিয়ের রাতে, নেশায় মাতাল হবো না তোমার দুঃখে
আমি করবো না আর লং মার্চ তোমার বাড়ির অভিমুখে।

আমি মুক্তাঙ্গনে তোমার কষ্টে দেবোনা দুঃখের ভাষণ
আমি প্রেসক্লাবে করবো না আর প্রতীকী অনশন।

আমি তোমার জন্য হাজার লোকের নিন্দা সইতে পারি
আমি তোমার জন্য পাহাড় সমান দুঃখে বইতে পারি।
আমি তোমার জন্য হাজার লোকের নিন্দা সইতে পারি
আমি তোমার জন্য পাহাড় সমান দুঃখে বইতে পারি।