জীবন সেতো পদ্ম পাতায় শিশির বিন্দু
মরুভুমির বুকে যেন বিষাদসিন্ধু
মনরে সে জীবন নিয়ে কেন এত কান্না
জীবনের পায়ে দিলি কেন এত ধর্ণা।।

আলোকের রূপ ধরে আলেয়া ছোটে
জোনাকির জ্বালা যেন ফুল হয়ে ফোটে

আহারে রাজার কুমার সোনার হরিণীতে মরে মাথা কুটে।
সোনার কাঠি রূপার যাদু আর নারে আর না।।

জলের লিখন যদি কপালের লেখা
প্রেমের আগুনে পুড়ে মরণে দেখা।

অবুঝ হিয়া তবু প্রেমের দোসর খুজে ফেরে হাটে হাটে।
ভালবাসা পুতুল খেলা আর নারে আর না।।