কবে, তৃষিত এ মরু ছাড়িয়া যাইব
তোমারি রসাল নন্দনে ;
কবে, তাপিত এ চিত করিব শীতল
তোমারি করুণা চন্দনে!

কবে, তোমাতে হ’য়ে যাব, আমার আমিহারা,
তোমারি নাম নিতে নয়নে ব’বে ধারা,
এ দেহ শিহরিবে, ব্যাকুল হবে প্রাণ
বিপুল পুলক-স্পন্দনে!

কবে, ভবের সুখ দুখ চরণে দলিয়া,
যাত্রা করিব গো, শ্রীহরি বলিয়া,
চরণ টলিবে না, হৃদয় গলিবে না,
কাহারো আকুল ক্রন্দনে।

॥ বেহাগ, কাওয়ালী॥