ঘড়ির কাটায় টিক টিক ।
সূর্যের সাথে ছয়টা।
ভীষণ বিরক্ত ভর করে।
সাথে বাবা-মায়ের ভয়টা।

বাঁধতে পারছিনা জুতোর ফিতেটা
দৌড়ে স্কুলে ছুটে ছুটে যা।
যাচ্ছি পথে আমি ক্লান্ত।
বাবা-মার মুখ তবুও বিভ্রান্ত।

আমি এক খাঁচার পাখি, আমি একবার উড়তে চাই।
আমি এক বন্দী পাখি, আমি একবার বাঁচতে চাই।

স্কুলের বন্দী পাখি আমি বাড়ি ফিরি ঠিক সন্ধ্যায়,
ক্লান্ত আমায় মা বলে, হোম ওয়ার্ক তবে কোন অধ্যায়?
দিনটাই তো চলে গেল, আকাশটাই দেখা হল না,
রাত্রিরা শুধু ডেকে ডেকে যায়, চাঁদ মামাকে দেখি না।

বাঁধতে পারছিনা জুতোর ফিতেটা
দৌড়ে স্কুলে ছুটে ছুটে যা।
যাচ্ছি পথে আমি ক্লান্ত।
বাবা-মার মুখ তবুও বিভ্রান্ত।

আমি এক খাঁচার পাখি, আমি একবার উড়তে চাই।
আমি এক বন্দী পাখি, আমি একবার বাঁচতে চাই।

দেশ আমার বায়ান্ন আর একুশে ফেব্রুয়ারি,
কাঁধে আমার ব্যাগ ভরা টুইংকেল এর বসত বাড়ি ।
১৬ই ডিসেম্বার মানে আমি বুঝি ভিক্টরি ডে,
ইংরেজি টা আমার বিষয়, বাংলাটা বুঝিয়ে দে।…বাংলাটা বুঝিয়ে দে… বাংলাটা বুঝিয়ে দে

বাঁধতে পারছিনা জুতোর ফিতেটা
দৌড়ে স্কুলে ছুটে ছুটে যা ।
যাচ্ছি পথে আমি ক্লান্ত ।
বাবা-মার মুখ তবুও বিভ্রান্ত।

আমি এক খাঁচার পাখি, আমি একবার উড়তে চাই।
আমি এক বন্দী পাখি, আমি একবার বাঁচতে চাই।