কেন বঞ্চিত হব চরণে!
আমি কত আশা করে বসে আছি, পাব জীবনে না হয় মরণে
আহা! তাই যদি নাহি হবে গো,-
পাতকী-তারণ-তরীতে তাপিত আতুরে তুলে না লবে গো,-
হয়ে পথের ধুলায় অন্ধ, এসে দেখিব কি খেয়া বন্ধ?
তবে পারে বসে “পার করো” বলে পাপী কেন ডাকে দীন-শরণে?
আমি শুনেছি হে তৃষাহারি!
তুমি এনে দাও তারে প্রেম-অমৃত, তৃষিত যে চাহে বারি।।
তুমি আপনা হইতে হও আপনার, যার কেহ নাই, তুমি আছ তার,
এ কি সব মিছে কথা? ভাবিতে যে ব্যথা বড়ো বাজে, প্রভু মরমে।।
[মিশ্র খাম্বাজ, জলদ একতালা]