রবীন্দ্র সংগীত

উতল-ধারা বাদল ঝরে। সকল বেলা একা ঘরে

উতল-ধারা বাদল ঝরে। সকল বেলা একা ঘরে॥

সজল হাওয়া বহে বেগে, পাগল নদী ওঠে জেগে,

আকাশ ঘেরে কাজল মেঘে, তমালবনে আঁধার করে॥

ওগো বঁধু দিনের শেষে এলে তুমি কেমন বেশে–

আঁচল দিয়ে শুকাব জল, মুছাব পা আকুল কেশে।

নিবিড় হবে তিমির-রাতি, জ্বেলে দেব প্রেমের বাতি,

পরানখানি দেব পাতি– চরণ রেখো তাহার ‘পরে॥

ভুলে গিয়ে জীবন মরণ লব তোমায় ক’রে বরণ–

করিব জয় শরম-ত্রাসে, দাঁড়াব আজ তোমার পাশে–

বাঁধন বাধা যাবে জ্ব’লে সুখ দুঃখ দেব দ’লে,

ঝড়ের রাতে তোমার সাথে বাহির হব অভয়ভরে॥

উতল-ধারা বাদল ঝরে, দুয়ার খুলে এলে ঘরে।

চোখে আমার ঝলক লাগে, সকল মনে পুলক জাগে,

চাহিতে চাই মুখের বাগে– নয়ন মেলে কাঁপি ডরে॥

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।