কোনো রূপকথা গল্প গাঁথা নয়
আমার স্মৃতি কলুষিত বিস্ময়
আমি দেখেছি ধর্ষিত বাংলা মায়ের মুখ
ছিল বিজাতী শত্রুর জয়

শুনি সেই মহান নেতার বাণী :
“রক্ত যখন দিয়েছি, রক্ত আরো দেব,
এদেশের মানুষকে মুক্ত করে ছাড়ব ইনশাল্লাহ
এবারের সংগ্রাম আমাদের মুক্তির সংগ্রাম
এবারের সংগ্রাম স্বাধীনতার সংগ্রাম”

ধীরে ধীরে জাগে বিদ্রোহী এদেশ
বুকের তাজা খুনে রাঙা বেশ নিয়ে
আঘাত হানে ভেঙে দিতে শোষকের প্রাসাদ
স্বাধীনতার স্বপ্নতলে এলো সেই রাত।

এলো সেই প্রথম বিদ্রোহী বীরের মহান কণ্ঠস্বর :
“I, Major Ziaur Rahman, do hereby declare,
the Independence of Bangladesh,
on behalf of our great national leader
Bongobondhu Sheikh Mujibur Rahman”

কেড়ে নিয়েছে ওই হায়নার দল
ধর্ষিত মায়ের চোখের জল
লাখো লাখো শহীদ- তোমাদের কথা ভুলিনি
জীবন দান যদি মহান মূল্য হয়
তোমরাই তো চির বিস্ময়
তোমাদের সমমূল্য বিশ্বে কোনো জাতি আজো দেয়নি
তবু কেন সেই থেকে মোরা স্বাধীনতার নামে পরাধীন
নিষ্পেষিত গোটা জাতি ওই রাজাকারের হাতে?

আর নয়, আর কতকাল তারা পাবে প্রশ্রয়!
পরাজিত সব দালাল আজ দাও পরিচয়
আজ যারা এই মাটিতে হাতিয়ার শানে
আজ যাদের রক্ত চোখ মোদেরই পানে
ওই রাজাকার ছেড়ে যা এই দেশটা আমার
আরেকটি মুক্তিযুদ্ধ করবে তোদের চির অবসান,
আসছে এই প্রজন্ম মুক্তিযোদ্ধাদেরই সন্তান

আর নয়, আর একটিবারও দেব প্রশ্রয়
এবার সব দালালের আজ দাও পরিচয়
আজ যারা এই মাটিতে হাতিয়ার শানে
আজ যাদের রক্ত চোখ মোদেরও পানে;
ওই রাজাকার ছেড়ে যা এই দেশটা আমার
আরেকটি মুক্তিযুদ্ধ করবে তোদের চির অবসান
আমরা এই প্রজন্ম মুক্তিযোদ্ধাদেরই সন্তান।

আমরা এই প্রজন্ম রাজাকারের তালিকা চাই
লাখো শহীদের সাথে মুক্তিযোদ্ধা আমরা সবাই।।