আমারে করো তোমার বীণা
লহো গো লহো তুলে।
উঠিবে আজি তন্ত্রীরাজি মোহন অঙ্গুলে।।

কোমল তব কমলকরে
পরশ করো পরান-‘পরে
উঠিবে হিয়া গুঞ্জরিয়া তব শ্রবণমূলে।।

কখনো সুখে কখনো দুখে
কাঁদিবে চাহি তোমার মুখে
চরণে পড়ি রবে নীরবে রহিবে যবে ভুলে।

কেহ না জানে কী নব তানে
উঠিবে গীত শূন্য-পানে
আনন্দের বারতা যাবে অনন্তের কূলে।।