ঐ তো তোমার শহর, ঐ তো তোমার ঢাকা,
আমায় নিয়ে উড়ছে এখন এরোপ্লেনের পাখা৷
ঐ তো তোমার শহর, তোমার গন্ধ মাখা,
বিমান থেকে দেখছি তোমার আমার শহর ঢাকা৷

ঐ তো রাস্তাঘাট ধানমন্ডির কাছে,
ঐ তো আমার বিষণ্ণতা একলা বসে আছে৷
ঐ তো নূরের হাসি, ঐ তো যাকের এলো,
ঐ তো একটা ঠাট্টা শুনে আমার হাসি পেলো৷

ঐ তো তোমার শহর, ঐ তো তোমার ঢাকা,
আমায় নিয়ে উড়ছে এখন এরোপ্লেনের পাখা৷
ঐ তো তোমার শহর, তোমার গন্ধ মাখা,
বিমান থেকে দেখছি তোমার আমার শহর ঢাকা৷

ঐ তো রিকশা ছোটে টয়োটাদের ভীড়ে,
ঐ তো ‘মেরাজ ফকির’ এলেন মায়ের কাছে ফিরে৷
ঐ তো রামেন্দু দা, ঐ তো গুলিস্তান,
হাওয়ায় ভেসে আসছে হঠাত্‍ আযম খানের গান৷

ঐ তো তোমার শহর, ঐ তো তোমার ঢাকা,
আমায় নিয়ে উড়ছে এখন এরোপ্লেনের পাখা৷
ঐ তো তোমার শহর, তোমার গন্ধ মাখা,
বিমান থেকে দেখছি তোমার আমার শহর ঢাকা৷

ঐ তো নতুন কবি রুখসানা আফরীন,
ঐ তো রেওয়াজ করতে বসেন সাবিনা ইয়াসমীন৷
ঐ তো মুক্তিযুদ্ধ যাদুঘরের মোড়,
ছোট্ট মেয়ের রক্ত মাখা স্বাধীনতার ভোর৷
ঐ তো পথের জটলা বিশ্ববিদ্যালয়৷
ঐ তো দাবি – “আসুক সাম্যতন্ত্র বিশ্বময়৷”

ঐ তো তোমার শহর, ঐ তো তোমার ঢাকা,
আমায় নিয়ে উড়ছে এখন এরোপ্লেনের পাখা৷
ঐ তো তোমার শহর, তোমার গন্ধ মাখা,
বিমান থেকে দেখছি তোমার আমার শহর ঢাকা৷

ঐ তো পান্ডুলিপি আখতারুজ্জামান
ইলিয়াসের গদ্য পড়ে লিখছি আমার গান৷
ঐ তো একটা গান তোমার জন্যে বাজে
নাচে ও গানটা শিবলি যেমন নীপার সংগে নাচে৷
ঐ তো শ্লোগান লেখা দেয়াল জুড়ে জুড়ে
পড়তে পড়তে হাওয়ায় ভেসে যাচ্ছি আমি উড়ে৷

একটু পরেই নামবে এরোপ্লেনের চাকা,
দেখবো তোমার অশ্রু দিয়ে কলকাতাটাই ঢাকা